সবার মূখে বাংলার জয়গান

স্টাফ রিপোর্টার
টাইম নিউজ বিডি,
২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৩:১৬:৪৭
#

১৯৫২ সালের এই দিনে যাদের বুকের তাজা রক্তে রঞ্জিত হয়েছিল ঢাকার রাজপথ, বিনম্র শ্রদ্ধায় তাদের স্মরণ করতে শহীদ মিনারে নেমেছিল মানুষের ঢল।


একুশের প্রথম প্রহর থেকেই সেখানে একদিকে যেমন মানুষ এসেছে দলে দলে, তেমনি বেজেছে বাংলার জয় গান। ফুলেল শ্রদ্ধায় ভরেছে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের বেদী।


ভাষা আন্দোলনে শহীদ রফিক স্মরণে পলাশী মোড়ে তৈরি করা হয়েছে ‘রফিক তোরণ।’ রফিক তোরণে ঢোকার মুখে মিছিলে মিছিলে বেজে উঠছে ভাষার গান, শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা আর ভালোবাসার গান- ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি, আমি কি ভুলিতে পারি’


আবার কবি ও গীতিকার অধ্যাপক আনিসুল হক চৌধুরীর লেখা অমর গণসংগীত ‘শোনেন হুজুর, বাঘের জাত, এই বাঙালেরা, জান দিতে ডরায় না তারা, তাদের দাবি বাংলা ভাষা, আদায় করে নেবে তাই।’


শোনা যায়, বায়ান্নের পটভূমিতে রচিত গান ‘বাংলার বুকের রক্তে রাঙানো আটই ফাল্গুন ভুলতে কি পারি শিমুলে পলাশে হেরি লালে লাল খুন’, ‘বাংলাদেশ আর বাংলা ভাষা যখন একই নামের সুতোয় বাঁধা।’


ভাষা আন্দোলনে দেশকে কাঁপিয়ে দেয়া এক নাম গাজীউল হক। ‘ভুলব না, ভুলব না, একুশে ফেব্রুয়ারি ভুলব না’ গানটি।


বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক দল, সংগঠন, সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ছাড়াও বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ শহীদ মিনারে এসেছেন শ্রদ্ধা জানাতে।


মা কিংবা বাবার হাত ধরে অনেক শিশু-কিশোরও এসেছে শহীদ মিনারে। শুধু শিশু কিংবা কিশোর নয়, এসেছেন বয়স্করাও।


পলাশীর মোড়ে রফিক তোরণের মুখে মোতায়েন করা হয়েছে পুলিশ, র‌্যাব ও আর্মডপুলিশ ব্যাটেলিয়ানের সদস্যরা। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভিড়ও বাড়ে।


হাতে বাংলা বর্ণমালা এঁকে শহীদ মিনারে বাবা নিজাম উদ্দিনের সঙ্গে এসেছিল রাবেয়া। সে বলছিল, ‘মায়ের ভাষা বাংলা, আমি মাকে যেমন ভালবাসি তেমনি ভালোবাসি বাংলা ভাষাকেও।’


বাবার দাবি, ভাষা শুধু আমার বাক-স্বাধীনতার বিষয় নয়, বাঙালি হিসেবে বাংলা আমাদের স্বাতন্ত্র্যবোধ জাগিয়েছে, এনেছে স্বাধীনতার বীজ। যে কারণে আজ আমরা স্বাধীন ভূখণ্ডে বাস করতে পারছি।


এর আগে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের প্রথম প্রহরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে ভাষা শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর ভিভিআইপি ও ভিআইপিদের শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সর্বস্তরের হাজারো মানুষের ঢল নামে।


এমএনজে

Print