যেখানেই অত্যাচার-নির্যাতন সেখানেই রুখে দাঁড়াতে হবে: জামায়াতে ইসলামী হিন্দ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
টাইম নিউজ বিডি,
১৯ অক্টোবর, ২০১৭ ২২:০৮:৪৬
#

জামায়াতে ইসলামী হিন্দের আমির মাওলানা জালালউদ্দিন উমরী বলেছেন, পৃথিবীর যে প্রান্তেই হোক না কেন অন্যায় ও জুলুমের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে।


আজ (বৃহস্পতিবার) পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদ জেলার ফারাক্কায় সৈয়দ নুরুল হাসান কলেজ ময়দানে এক প্রকাশ্য সমাবেশে ওই মন্তব্য করেন।


মাওলানা জালালউদ্দিন উমরী সমস্ত মানবতাবাদীদের উদ্দেশ্যে জুলুম ও অত্যাচারের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানান।


তিনি বলেন, “এতদিন পর্যন্ত মুসলিমরা তাদের নিজস্ব সমস্যা ও দাবি-দাওয়া নিয়ে কথা বলেছে। কিন্তু ইসলাম তা বলে না। ইসলাম বলে, যেখানে মানুষের উপরে জুলুম, নির্যাতন, অত্যাচার হবে সেখানেই ইসলামপন্থি মানুষ, যারা মুসলিম তাদেরকে ঐক্যবদ্ধভাবে তার প্রতিবাদে সোচ্চার হতে হবে। কখনো দলিতদের উপরে, কখনো আদিবাসীদের উপরে, কখনো অন্য সম্প্রদায়ের উপরে নির্যাতন হচ্ছে। যেখানেই মানুষের উপরে অত্যাচার হোক মুসলিমদের তার প্রতিবাদে এগিয়ে আসা উচিত।”


জামায়াতের পশ্চিমবঙ্গের আমির মুহাম্মদ নুরুদ্দিন রেডিও তেহরানকে বলেন, “পৃথিবীতে বিপর্যয় সৃষ্টিকারীরা দাবি করছে তারা বিপর্যয় সৃষ্টি করছে না, মানুষকে সংশোধন করছে। কিন্তু আল্লাহ্‌ রব্বুল আলামীন বলেছেন ওরা সংশোধনকারী নয়, ওরা বিপর্যয় সৃষ্টিকারী। সেই বিপর্যয়ের নমুনা আমরা বর্তমানে মিয়ানমারে, বাংলাদেশে, ভারতে তা দেখতে পাচ্ছি। এসব দেশে শাসক শ্রেণি ক্ষমতার অপব্যবহার করে দুর্বলদের উপরে অত্যাচার করছে।”


তিনি বলেন, “মিয়ানমারে মানুষদের উচ্ছেদ করা হচ্ছে। সেখানে রোহিঙ্গাদের জ্বালিয়ে পুড়িয়ে ধ্বংস করে দেয়া হচ্ছে, গণহত্যা চালানো হচ্ছে। মিয়ানমার থেকে যেসব রোহিঙ্গা পালিয়ে এসে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। জাতিসঙ্ঘ বা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় তাদের দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করছে না। মানবিক সঙ্কটের মুখে পড়েছে নির্যাতিত রোহিঙ্গারা।”


তিনি আরও বলেন, “ভারতে গোরক্ষার নামে গণপিটুনি, সাম্প্রদায়িকতা বেড়ে যাচ্ছে। কিন্তু সরকারের পক্ষ থেকে মানুষের দৃষ্টি অন্যদিকে ঘুরিয়ে দেয়ার জন্য নোট বাতিল, পণ্য পরিসেবা করসহ বিভিন্ন বিষয় আনা হচ্ছে যা আসলে মানবীয় বিপর্যয়। এসবের প্রতিবাদে সকলকে সোচ্চার হয়ে সমাজে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে।”      


জামায়াতে ইসলামী হিন্দের পশ্চিমবঙ্গ শাখা আয়োজিত ৩ দিনের সদস্য সম্মলনে আজ দ্বিতীয় দিন প্রকাশ্য সমাবেশে ‘পৃথিবীতে বিপর্যয় সৃষ্টি কোরো না’ এই বিষয়ের উপরে আলোচনায় আমিরে জামায়াত মাওলানা জালালউদ্দিন উমরীর পাশাপাশি জামায়াতের কেন্দ্রীয় সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মুহাম্মদ সেলিম, মুসলিম পার্সোনাল ল’ বোর্ডের সদস্য ডা. রইস উদ্দিন, পশ্চিমবঙ্গের জামায়াতের নারী শাখার নেত্রী নায়ীমা আনসারি, স্টুডেন্টস ইসলামিক অর্গানাইজেশন অব ইন্ডিয়া (এসআইও)’র রাজ্য সম্পাদক ইমাম হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


এমবি   

Print