ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেয়ার পর পালাতে গিয়ে আটক

স্টাফ রিপোর্টার
টাইম নিউজ বিডি,
১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১৭:২৯:৫০
#

ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানার পর দীর্ঘদিন পলাতক ছিল জুয়েল চন্দ্র শীল। তার বিরুদ্ধে এই জন্য মামলাও হয়। সর্বশেষ বেনাপোল দিয়ে ভারতে পালিয়ে যাওয়ার সময় তাকে আটক করে ইমিগ্রেশন পুলিশ।


জুয়েল লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতি থানার চরলক্ষ্মী গ্রামের বেজু কুমার শীলের ছেলে। বেনাপোল আন্তর্জাতিক চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন থেকে শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে তাকে গ্রেপ্তার করে ইমিগ্রেশন পুলিশ। ইমিগ্রেশন কাউন্টারে পাসপোর্ট জমা দেয়ার সঙ্গে সঙ্গে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।


ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানার অভিযোগে ফেনী সদর থানায় তার বিরুদ্ধে একটি মামলা রয়েছে। মামলা নং- ৩৯ তারিখ-১৫/০২/১৫। ইমিগ্রেশন পুলিশের ওসি তরিকুল ইসলাম জানান, ওই মামলায় এতদিন তিনি পলাতক ছিলেন। তিনি যেন দেশের বাইরে পালিয়ে যেতে না পারেন সে জন্য স্থল ও বিমান পথে তার নামে রেড এলার্ট জারি করে পুলিশ। পরে মামলার ব্যাপারে নিশ্চিত হয়ে তাকে বেনাপোল পোর্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়।


ফেনী সদর থানার ওসি রাশেদ খান চৌধুরী জানান, ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানার অভিযোগে জুয়েল চন্দ্র শীলের নামে ফেনী সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। তাকে দীর্ঘদিন গ্রেপ্তার করতে না পেরে দেশের সকল ইমিগ্রেশনে চিঠি দেয়া হয়। তিনি আরও জানান, আদালতের মাধ্যমে জুয়েল চন্দ্র শীলকে ফেনীতে নিয়ে আসার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।


বেনাপোল পোর্ট থানার এসআই শরীফ হাবিবুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, জুয়েল চন্দ্র শীলকে গ্রেপ্তারের খবর ফেনী সদর থানায় জানানো হয়েছে। শনিবার সকালে তাকে যশোর আদালতে হাজির করা হবে।


জেড

Print