রমজান শুরুর আগেই বাড়ছে পেঁয়াজ-চিনির দাম

টাইম ডেস্ক
টাইম নিউজ বিডি,
১৩ মে, ২০১৮ ০১:০৯:০৭
#

রমজান শুরুর আগেই বাড়তে শুরু করেছে পেঁয়াজ ও চিনির দাম। কেজিতে ২ টাকা বেড়েছে পণ্য দুটির দাম। তবে সুখবর আছে চালের বাজারে। রাজধানীর পাইকারি বাজারে সবধরনের চালের দাম আরেক দফায় কমেছে। কমেছে আদা-রসুনের দাম। তবে পাইকাররা বলছেন, সরবরাহ স্বাভাবিক থাকায় রমজানে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বাড়ার কোন আশঙ্কা নেই।


গেল কয়েক সপ্তাহ ধরে কোনোভাবেই লাগাম টানা যাচ্ছিল না চালের দামের। তবে হঠাৎ করেই স্বস্তির খবর ক্রেতাদের জন্য। নতুন চাল বাজারে আসায়, কেজিতে ৬ টাকা কমে মিনিকেট চাল বিক্রি হচ্ছে ৫৪ টাকায় আর, কেজিতে ৭ থেকে ৮ টাকা কমে নতুন আটাশ চাল বিক্রি হচ্ছে ৪২ টাকায়। তবে মৌসুম না হওয়ায় অপরিবর্তিত রয়েছে দেশী নাজিরশাইল চালের দাম। তবে কেজিতে ২ থেকে ৩ টাকা কমেছে আমদানি করা নাজিরশাইল চালের দাম।


চাল ব্যবসায়ীরা জানান, নতুন মিনিকেট চালে ৫-৬ টাকা কমে এখন ৫৫ থেকে ৫৬ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।


অন্য ব্যবসায়ী জানান, বাজারে নতুন চাল আসায় কমতে শুরু করেছে সব ধরনের চালের দাম।


শুধু চালই নয়, আদা-রসুন বাজারেও সুখবর। কেজিতে ১০ টাকা কমে রসুন ৭৫ আর আদা বিক্রি হচ্ছে ৮৫ টাকায়। তবে বাড়ছে পেঁয়াজের দাম।


বিক্রেতারা জানান, গত সপ্তাহের তুলনায় এই সপ্তাহে দেশী পেঁয়াজে দাম বেড়ে ৪২ টাকা বিক্রি হচ্ছে। আর আদা ১০ টাকা কমে ৮৭ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।


প্রতিবছর রমজানকে সামনে রেখে ভোজ্যতেল আর চিনির বাজার অস্থিতিশীল থাকলেও এবারের চিত্র ভিন্ন। চিনির দাম কেজিতে ২ টাকা বাড়লেও স্থিতিশীল রয়েছে সব ধরনের ডাল আর ছোলার দাম।


ক্রেতারা জানান, রমজানকে সামনে রেখে প্রতি বছর যেভাবে নিত্যপূন্যের দাম বাড়ে সেই তুলনায় এই বছর বাজার কিছুটা স্বাভাবিক রয়েছে।


মসলার বাজারে এলাচ মানভেদে কেজিতে ৭০ থেকে ৮০ টাকা বাড়লেও স্থিতিশীল রয়েছে অন্যান্য মসলার দাম।


এসএম

Print