প্রশাসনের উপস্থিতিতে, মঞ্জুর গাড়ি আটকে নৌকার ‘মিছিল’ | timenewsbd.com

প্রশাসনের উপস্থিতিতে, মঞ্জুর গাড়ি আটকে নৌকার ‘মিছিল’

স্টাফ রিপোর্টার
টাইম নিউজ বিডি,
১৫ মে, ২০১৮ ১৮:০৭:০০
#

খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে একটি ভোটকেন্দ্রে বিএনপির মেয়র প্রার্থী নজরুল ইসলাম মঞ্জুকে ঘিরে নৌকা মার্কার পক্ষে স্লোগান দিয়েছে আওয়ামী লীগ সমর্থকরা।


নগরীর ২২ নম্বর ওয়ার্ডের ফাতিমা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে এই ঘটনা ঘটে। সকাল সাড়ে নয়টার দিকে এই কেন্দ্রের একটি বুথে আওয়ামী লীগ সমর্থকরা ঢুকে ৪৫টি ব্যালটে নৌকা মার্কায় সিল মারার পর ভোটগ্রহণ বন্ধ করে দেন প্রিজাইডিং কর্মকর্তা।


এই খবর পেয়ে ওই কেন্দ্রেও ছুটে যান মঞ্জু। তিনি প্রিজাইডিং কর্মকর্তা জিয়াউল হকের সঙ্গে কথা বলেন।


সেখান থেকে বের হয়ে অন্য একটি কেন্দ্রের উদ্দেশে বের হওয়ার পর মঞ্জুর গাড়ি ঘিরে ধরেন আওয়ামী লীগের সমর্থকরা।


তারা স্লোগান দেন, ‘জিতবে কারা নৌকা’, ‘এবার হবে নৌকা’।


ভোটের দিন কেন্দ্রের আশপাশে কোনো ধরনের স্লোগান বা মিছিল করা নিষিদ্ধ হলেও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তারা আওয়ামী লীগ সমর্থকদেরকে কোনো বাধা দেয়নি।


এ সময় পাশে দাঁড়িয়ে থাকা কয়েকজনকে হাস্যরস করতে দেখা যায়। পাশেই বিজিবির সদস্যরা থাকলেও তাদেরকে চুপচাপ থাকতে দেখা যায়। আর মূল ফটকের ভেতরে পুলিশ সদস্যরা থাকলেও তাদের এদিকে কোনো খেয়াল রাখতে দেখা যায়নি।


কিছুক্ষণ পর নৌকার সমর্থকরা সরে গেলে অন্য কেন্দ্রের দিকে রওনা হন মঞ্জু।


সকাল আটটা থেকে নগরীর ২৮৯টি কেন্দ্রে শুরু হয় ভোট। আওয়ামী লীগের তালুকদার আবদুল খালেক শান্তিপূর্ণ পরিবেশে নির্বাচন হচ্ছে জানালেও বিএনপির প্রার্থী মঞ্জু অভিযোগ করেছেন, ৩০টি কেন্দ্রে তার এজেন্টদের বের করে দেয়া হয়েছে।


এর মধ্যে ফাতিমা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের পাশাপাশি আরও একটি কেন্দ্রে গোলযোগের ঘটনা ঘটেছে। শেরেবাংলা রোডের সোনাপোতা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের সামনে বিএনপি প্রার্থীর নির্বাচনী বুথ ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। এর জন্য আওয়ামী লীগ সমর্থকদেরকে দায়ী করেছে বিএনপি।

Print