শিশু ধর্ষণ ও হত্যা : ১৪ বছর পর চারজনের মৃত্যুদণ্ড

স্টাফ রিপোর্টার
টাইম নিউজ বিডি,
১১ জুন, ২০১৮ ১৮:০৮:৪৭
#

নারায়ণগঞ্জের শিশু খাদিজা আক্তার ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় চার আসামির প্রাণদণ্ড হয়েছে।


আজ সোমবার সকালে নারায়ণগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন বিশেষ ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক মো. জুয়েল রানা এই রায় দেন। মামলার ১৪ বছর পর এ রায় হলো।


রায়ের সময় চার আসামি পলাতক ছিল। দণ্ডিতরা আসামিরা হলো- চার বন্ধু সুজন, আলামীন, আবুল কালাম ও শাহাদাৎ।


মামলার বাদী নিহত শিশু খাদিজার ভাই আনসার আলী জানান, তাঁদের বাড়ি সদর থানার আলীরটেক এলাকায়। ২০০৩ সালের ১ জানুয়ারি তাঁর ছোট বোন খাদিজা নিখোঁজ হওয়ার একদিন পর সরিষা ক্ষেত থেকে রক্তাক্ত অবস্থায় মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।


পরদিন একই গ্রামের চার বন্ধু সুমন, আলী আকবর, আবুল কালাম ও শাহাদাতের বিরুদ্ধে নারায়ণগঞ্জ সদর থানায় মামলা করা হয়। আসামিরা ওই দিন থেকেই পলাতক।


রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী রকিব উদ্দিন জানান, মামলায় ১৭ আসামির মধ্যে পাঁচজনের সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনে শিশু খাদিজাকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধে হত্যার আলামত পাওয়া গেছে।


এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, ২০০৩ সালের ১৩ জানুয়ারি সন্ধ্যায় সদর উপজেলার আলীরটেক এলাকার আলী আকবরের ১০ বছর বয়সী মেয়ে খাদিজা আক্তারকে একই এলাকার চার যুবক বাসা থেকে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর থেকে খাদিজা নিখোঁজ থাকে। পরদিন সকালে বাড়ির পাশে একটি সরিষাক্ষেত থেকে খাদিজার লাশ উদ্ধার করা হয়। এএস

Print