৪৩ রানেই অল আউট বাংলাদেশ

স্পের্টস ডেস্ক
টাইম নিউজ বিডি,
০৫ জুলাই, ২০১৮ ০৩:২৪:৫৫
#

ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে গিয়ে শুরুতেই রীতিমতো কাঁপলেন সাকিব-তামিম-মুশফিকরা। গড়লেন লজ্জার নতুন রেকর্ড। বাংলাদেশের ইনিংস গুটিয়ে গেল মাত্র ৪৩ রানেই। এটাই টেস্টে বাংলাদেশের সর্বনিম্ন স্কোর। আর শতাব্দীর সর্বনিম্ন সংগ্রহও এখন বাংলাদেশের। তাই এই দিনটার স্মৃতি ভুলেই যেতে চাইবেন বাংলাদেশের তারকা ক্রিকেটাররা। 


এক দিকে চলছে বিশ্বকাপের ডামাডোল। ফুটবলের সবচেয়ে বড় এই আসর নিয়েই মেতে আছে পুরো বিশ্ব। এরই মধ্যে ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জে বসেছে বাংলাদেশ আর ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিকেটীয় আসর।


দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে দুই দল। আর সেখানে শুরুতেই নতুন লজ্জার রেকর্ড গড়ল বাংলাদেশ। ৪৩ রানে অলআউট হওয়াটাই এখন টেস্টে বাংলাদেশের সর্বনিম্ন স্কোর হিসেবে লেখা হবে। এর আগে যেটি ছিল ৬২ রানের। ২০০৭ সালে শ্রীলঙ্কা সফরে গিয়ে সেই রেকর্ডটি করেছিল বাংলাদেশ। 


টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে সর্বনিম্ন ৫ ইনিংসের সবগুলোই হয়েছে গেল শতাব্দীতে। ১৮৮৮ থেকে ১৯৭৪ সালের মধ্যে। এই সময়কালে টেস্ট ক্রিকেট ২৫, ৩০, ৩৫, ৩৬, ৪২, ৪৩ রানের সর্বনিম্ন ইনিংসের সাক্ষী হয়েছে। একবিংশ শতাব্দীতে ২০১৩ সালে সবশেষ নিউজিল্যান্ড করেছিল ৪৫ রান। সেটা ছিল এই শতাব্দীর সর্বনিম্ন ইনিংস। 


১৮.৪ ওভার মোকাবেলা করে মাত্র ৪৩ রানে অলআউট হয়েছে টাইগাররা। যা এই শতাব্দীতে টেস্টের এক ইনিংসে সর্বনিম্ন সংগ্রহ। 



আজ (বুধবার) টস হেরে ব্যাট করতে নেমে প্রথম ৯ ওভারের মধ্যেই ৫ উইকেট হারিয়ে ভয়াবহ বিপদের মুখে পড়েন সাকিবরা। প্রথম ৪ ওভার ভালোভাবে কাটিয়ে দিতে পারলেও পঞ্চম ওভারেই ধাক্কা খায় বাংলাদেশ।


তামিম ইকবাল ফেরেন কেমার রোচের শিকার হয়ে। নিজের পরের ওভারে মুমিনুল হকের উইকেটও তুলে নেন ডানহাতি এই পেসার। এরপর বাংলাদেশ খায় আরও বড় ধাক্কা। কেমার রোচের পঞ্চম ও ইনিংসের নবম ওভারে একে একে সাজঘরের পথে হাঁটেন বাংলাদেশের প্রধান ৩ ব্যাটিং স্তম্ভ মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান ও মাহমুদউল্লাহ। ৩ জনই আউট হয়েছেন রানের খাতা না খুলেই। 


তামিমের উদ্বোধনী সঙ্গী হিসেবে ব্যাট করতে নেমে উইকেটের অপর প্রান্তে দাঁড়িয়ে হতাশা নিয়ে সতীর্থদের এই আসা যাওয়া দেখতে হচ্ছে লিটন দাসকে।


তিনি একাই প্রায় দাঁড়িয়েছিলেন ধ্বংসস্তুপের মধ্যে। শেষ পর্যন্ত তাঁর ব্যাট থেকে এসেছে ২৫ রান। বলাই বাহুল্য, অন্য কোনো ব্যাটসম্যানই পেরোতে পারেননি দুই অঙ্কের কোটা। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ, ৬ রান করে অপরাজিত ছিলেন রুবেল হোসেন। শূণ্য রানে আউট হয়েছেন ৪ জন।


এমবি     

Print