কোটা আন্দোলনের সঙ্গে জঙ্গি কর্মকাণ্ডে মিল আছে: ঢাবি ভিসি   

স্টাফ রিপোর্টার
টাইম নিউজ বিডি,
০৮ জুলাই, ২০১৮ ২৩:৫৫:৪৫
#

কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের সব পদক্ষেপের সঙ্গে জঙ্গি কর্মকাণ্ডের মিল আছে বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ভিসি অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান। তিনি বলেন, “কোটা আন্দোলনকারীদের সব কাজই জঙ্গিবাদের বহিঃপ্রকাশ।”  


আজ (রোববার) দুপুরে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ভিসি এমন মন্তব্য করেন।


ঢাবি ভিসি ড. আখতারুজ্জামান বলেন, “কোটা আন্দোলনকারীরা ফেসবুক লাইভে এসে জঙ্গিদের মতো করে ভিডিও বার্তা দিয়ে কর্মসূচি বা কর্মপরিকল্পনা ঘোষণা করে। তাদের এমন মনোভাবের সঙ্গে জঙ্গি কর্মকাণ্ডের মিল আছে। তারা কারা? কোন রাজনৈতিক অশুভ শক্তি, আমরা তা জানি না। সেটা বের করবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। তাদের সহায়তা করবো আমরা।”


ভিসি বলেন,“অনেক সুস্পষ্ট ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে আমাদের কাছে প্রতীয়মান হয় যে একটি বড় অপশক্তি ক্রিয়াশীল আছে। উদাহরণ হিসেবে বলবো ফেসবুক লাইভে তাদের ভিডিও বার্তার কথা। আমার কয়েকজন সহকর্মী একটি লাইভ ভিডিও দেখিয়েছেন। সেটি দেখলাম। দেখার পর মনে হলো- জঙ্গিগোষ্ঠী তালেবান ও বোকোহারাম যেমন ভিডিও বার্তার মাধ্যমে বিভিন্ন উসকানি ও নাশকতার অপপ্রয়াস নেয়, কোটা আন্দোলনকারীদের ভিডিওতে ঠিক তেমন একটি প্রতিচ্ছবি দেখতে পেয়েছি।” 


উপাচার্য আরও বলেন, “ভিডিওতে দেখা গেলো আন্দোলনকারীরা একটি চেয়ারে বসা। সেখান থেকে বিভিন্ন কর্মপন্থার নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে। কর্মসূচি পালনের অনুরোধ জানানো হচ্ছে। এই বার্তায় একটা কথা আছে, ‘আমরা মৃত্যুকে ভয় পাবো না।’এটা খুব উগ্র চরমপন্থি। এ ধরনের মতাদর্শ-ভাবাদর্শ প্রচারের ভিডিও আমি নিজে দেখেছি। এমন ভিডিও দুই-তিন ঘণ্টা পর পর ছাড়া হচ্ছে।


জঙ্গি কর্মকাণ্ডের আরেকটি বহিঃপ্রকাশ হলো- তারা অশুভ কাজ সম্পাদনের জন্য নারীদের ব্যবহার করে। একইভাবে কোটা সংস্কার আন্দোলনে মেয়েদের হলগুলোতে গভীর রাতে ২০-২৫ জন ছাত্রীকে দিয়ে উচ্চস্বরে চিৎকারের মাধ্যমে মিছিল করানো হচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন পরিপন্থি কোনও ধরনের কাজ আমরা বরদাশত করবো না।” 


শিক্ষার্থীদের ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনে বাধ্য করার মতো আরেকটি অশুভ তৎপরতা বিশ্ববিদ্যালয় তৈরি হয়েছে বলে মনে করেন ভিসি।  


উপাচার্য বলেন, “ইতোমধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ে ইতিবাচক পরিবর্তন ঘটে গেছে। শিক্ষার্থীরা নিয়মিত ক্লাস করতে চায়। তবে ক্লাস করতে ও দিতে বাধা দেয়, এমন একটি অশুভ তৎপরতা শুরু হয়েছে। এগুলো বড়মাপের অশুভ তৎপরতা। ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করানো মানে শিক্ষার্থীদের মৌলিক অধিকারের বিপক্ষে দাঁড়ানো।”  


এমবি     

Print