২০ বছর পর চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স

টাইম ডেস্ক
টাইম নিউজ বিডি,
১৬ জুলাই, ২০১৮ ০৪:০১:৩১
#

চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স। রাশিয়া বিশ্বকাপ ২০১৮’র ফাইনালে ২০ বছর পর শিরোপার লড়াইয়ে মাঠে নামে ফ্রান্স আর প্রথমবার ফাইনালে উঠে ক্রোয়েশিয়া। 


আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে প্রথমে এগিয়ে গিয়েছিল ফরাসিরা। পরক্ষণেই সমতায় ফেরে ক্রোয়াটরা। ফের এগিয়ে যায় ৯৮ চ্যাম্পিয়নরা। শেষ পর্যন্ত ৪-২ গোলে এগিয়ে গেছে চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স।


ফ্রান্স ১৯৯৮ সালে প্রথমবার বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। এবার তাদের দ্বিতীয় শিরোপা জয়। অবশ্য ২০০৬ সালে জার্মানি বিশ্বকাপে ফাইনালে উঠেও ইতালির কাছে হেরে শিরোপা হাতছাড়া হয়েছিল তাদের। এবার আর তা হয়নি, সোনালি প্রজন্মের ক্রোয়েশিয়াকে বড় ব্যবধানে হারিয়েই শিরোপা জিতে নেয় তারা।


অবশ্য ম্যাচের ১৮ মিনিটে আত্মঘাতী গোলে এগিয়ে যায় ফ্রান্স (১-০)। বক্সের বাইরে থেকে আতোয়োন গ্রিজম্যানের চমৎকার ফ্রি-কিকে বিপদমুক্ত করতে গিয়ে নিজেদের জালে জড়িয়ে দেন বল মারিও মান্দজুকিচ। তাঁর মাথা ছুঁয়ে বল চলে যায় জালে।


অল্প কিছুক্ষণের মধ্যে গোলটি সমতায় নিয়ে আসে ক্রোয়েশিয়া (১-১)। ঠিক ১০ মিনিট পর চমৎকার গোলে দলকে খেলায় ফেরান ইভান পেরিসিচ। বক্সে ঢুকেই তাঁর চমৎকার প্লেসিং বল ঠিকানা খুঁজে পায় জালে।


৩৮ মিনিটে আবার এগিয়ে যায় ফ্রান্স (২-১)। পেনাল্টি থেকে গোল করে দলের ব্যবধান দ্বিগুণ করেন আতোয়োন গ্রিজম্যান। বক্সের মধ্যে ক্রোয়েশিয়া ডিফেন্ডার পেরিসিচের হাতে বল লাগলে রেফারি পেনাল্টির বাঁশি বাজান।



ফ্রান্সের পক্ষে তৃতীয় গোলটি করেন পল পগবা। ৫৯ মিনিটে বক্সের সামনে থেকে আচমকা শটে লক্ষ্যভেদ করেন এই ফরাসি মিডফিল্ডার।


ছয় মিনিট পর দলের ব্যবধান আরো বড় করেন (৪-১) এমবাপে। মাঝমাঠ থেকে পাওয়া একটি বল নিয়ে বক্সে ঢুকে দারুণ শটে গোল করেন তিনি।



৬৯ মিনিটে মারিও মান্দজুকিচ ক্রোয়েশিয়ার পক্ষে দ্বিতীয় গোল করে ব্যবধান কিছুটা কমান (২-৪)। ফ্রান্স গোলরক্ষকের সমানে থেকে বল নিয়েই জালে জড়ান তিনি।



মান্দজুকিচের এই গোলে ব্যবধান কিছুটা কমলেও ক্রোয়াটদের হার এড়ায়নি।  তাই প্রথমবার ফাইনালে উঠে রানার্সআপ হয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে তাদের।



ক্রোয়েশিয়া পুরো আসরে দারুণ খেলেও ফাইনালে গিয়ে আর পারেনি তারুণ্য-নির্ভর ফ্রান্সের সঙ্গে। অবশ্য ফাইনালে যে তারা খারাপ খেলেছে সেটা বলা যাবে না। তবে ফ্রান্সের কৌশলি ফুটবলের কাছে।   



শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে ৪-৩-৩ ফরমেশনে ফ্রান্স একাদশ সাজিয়েছেন দিদিয়ের দেশম। একই ফরমেশনে দল খেলাচ্ছেন ক্রোয়েশিয়া কোচ জ্লাতকো দালিচও।


এখন পর্যন্ত ৫বার মুখোমুখি হয়েছে ফ্রান্স-ক্রোয়েশিয়া। দু’দলের লড়াইয়ে কখনো হারেনি ফরাসিরা। ক্রোয়াটদের বিপক্ষে ৩ জয়ের বিপরীতে তাদের ড্র ২।


বিশ্বকাপে এর আগে একবার মুখোমুখি হয় ফ্রান্স ও ক্রোয়েশিয়া। ১৯৯৮ বিশ্বকাপে, সেবার ফরাসিদের কাছে হেরে স্বপ্নভঙ্গ হয় ক্রোয়াটদের। অর্থাৎ প্রতিশোধের হাতছানি মড্রিচদের সামনে।


রাশিয়া বিশ্বকাপ-২০১৮ ফাইনালে ফ্রান্স ও ক্রোয়েশিয়া একাদশ 


ফ্রান্স একাদশ: ‍উগো লরি, বেঞ্জামিন পাভার্দ, রাফায়েল ভারান, স্যামুয়েল উমতিতি, হের্নান্দেস, গোলো কঁতে, পল পগবা, কাইলিয়ান এমবাপে, আন্তোয়ান গ্রিয়েজমান, ব্লেইস মাতুইদি ও অলিভিয়ের জিরুদ।


ক্রোয়েশিয়া একাদশ: দানিয়েল সুবাসিচ, ভ্রাসালকো, দেহান লভরেন, দোমাগাজো ভিদা, ইভান স্ত্রিনিচ, ব্রোজোভিচ, ইভান রাকিতিচ, লুকা মদরিচ, ইভান পেরিশিচ, আন্তে রেবিচ ও মারিও মানজুকিচ। 


এমবি     


 

Print