‘প্রশ্নফাঁস করে নয়, পড়াশোনা করেই কাঙ্খিত ফল অর্জন করতে হবে’

স্টাফ রিপোর্টার
টাইম নিউজ বিডি,
১৯ জুলাই, ২০১৮ ১৭:১৫:৫০
#

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, প্রশ্নফাঁস করে নয়, পড়াশোনা করেই কাঙ্খিত ফল অর্জন করতে হবে। দেশ গড়তে মেধাকে কাজে লাগাতে হবে। গণভবনে বৃহস্পতিবার সকালে শিক্ষামন্ত্রীর কাছ থেকে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল গ্রহণকালে এসব কথা বলেন তিনি।


প্রধানমন্ত্রী এসময় কৃতকার্যদের অভিনন্দন জানান। পাশাপাশি যারা অকৃতকার্য হয়েছে তাদেরকে যেন বকাঝকা করা না হয়, অভিভাকদের কাছে সেই আহ্বান জানান।


প্রধানমন্ত্রী বলেন, বকাঝকা কোনো সমাধান নয়। যারা অকৃতকার্য হয়েছে ভবিষ্যতে যাতে তারা কৃতকার্য হয় সেদিকে দৃষ্টি দিতে হবে। মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ থেকে দূরে থাকতে হবে।


তিনি বলেন, আমি আমাদের সকল শিক্ষক, অভিভাবক এবং মসজিদের ইমামসহ যারা শিক্ষা দেন তাদের সবাইকে বলব, আপনাদের এ বিষয়ে বিশেষ সজাগ থাকতে হবে। ছেলে-মেয়ে কোথায় যায়? কি করে? কার সাথে মিশে বা কলেজে অনুপস্থিত থাকলো কি না? এই বিষয়গুলোর দিকে বিশেষ দৃষ্টি দিতে হবে। বাবা-মাকে দিতে হবে, অভিভাবক যারা আছেন তাদেরকে দিতে হবে, শিক্ষকদেরকেও দিতে হবে।


শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের ছেলে মেয়েরা সুস্থভাবে, সুন্দরভাবে বেঁচে থাকুক। সুন্দরভাবে তাদের জীবন গড়ে উঠুক সেটাই আমি কামনা করি।


প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তুলেছি। সারা বাংলাদেশেই এখন অনলাইন আছে। মোবাইল ফোন সেটাও সবার হাতে তুলে দিয়েছি। ডিজিটাল সেন্টারের মাধ্যমে বিভিন্নভাবে ঘরে বসে পরীক্ষার রেজাল্ট পেয়ে যাচ্ছেন। এখন আর যার যার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গিয়ে লাইন দিতে হচ্ছে না। নাম খুঁজতে হচ্ছে না। খুব সহজেই পেয়ে যাচ্ছেন। এই যে ঘরে বসে রেজাল্টটা পেয়ে যাচ্ছেন। আমরা যে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়েছি এটি তারই ফসল। সুফলটা এখন ঘরে ঘরে পৌঁছে যাচ্ছে।


প্রধানমন্ত্রী দেশবাসীর কাছে আহ্ববান করে বলেন, চলুন আমরা আমাদের দেশ, প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশ, এই বাংলাদেশকে ক্ষুধামুক্ত, দারিদ্র্যমুক্ত সোনার বাংলাদেশ হিসেবে গড়ে তুলি। বাংলাদেশ এখন ক্ষুধামক্ত। আমরা এখন উন্নয়নশীল দেশ। আমরা এখন বিশ্বের সামনে মর্যাদা নিয়ে চলতে পারি। কেউ আমাদেরকে আর অবহেলার চোখে দেখবে না।


তিনি বলেন, জাতির পিতা সাড়ে তিন বছরের মধ্যে বাংলাদেশকে স্বল্পোন্নত দেশ হিসেবে গড়ে তুলে গিয়েছিলেন। আজকে আমরা সেই দেশকে উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম হয়েছি। বিশ্বে আমাদের মর্যাদা বেড়েছে। আমরা মহান মুক্তিযুদ্ধে লাখো শহীদের রক্তের বিনিময়ে এই স্বাধীনতা অর্জন করেছি। আমরা মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ী জাতি। বিশ্বদরবারে আমরা সবসময় মাথা উঁচু করে চলব।


আমাদের ছেলে-মেয়েরা আজকে যারা পাস করল। তারা ভবিষ্যতে এই দেশের কর্ণধার হবে। এই দেশকে আরো উন্নত করবে। সেটাই আমি কামনা করি যোগ করেন প্রধানমন্ত্রী।

Print