ওয়ানডে ইতিহাসে বিশ্বরেকর্ড গড়ল পাকিস্তান    | timenewsbd.com

ওয়ানডে ইতিহাসে বিশ্বরেকর্ড গড়ল পাকিস্তান   

স্পোর্টস ডেস্ক
টাইম নিউজ বিডি,
২০ জুলাই, ২০১৮ ২৩:০৮:৪৫
#

ওয়ানডে ইতিহাসে বিশ্বরেকর্ড গড়েছে পাকিস্তান। ওয়ানডে ইতিহাসে উদ্বোধনী জুটিতে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড গড়েছেন পাকিস্তানের দুই ওপেনার ইমাম-উল-হক আর ফাখর জামান।


এতদিন ওয়ানডে ইতিহাসের সবচেয়ে বড় উদ্বোধনী জুটিটি ছিল শ্রীলঙ্কার উপুল থারাঙ্গা আর সনাথ জয়সুরিয়ার। ২০০৬ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে লিডসে ২৮৬ রানের ওপেনিং জুটি গড়েছিলেন তারা।


ফাখর জামান আর ইমাম-উল-হক এবার তাদের ছাড়িয়ে চলে গেছেন আরও অনেকটা দূর। তাদের জুটিটি থেমেছে ৩০৪ রানে। রেকর্ড গড়া এই জুটিটি ভেঙেছে ইমাম-উল-হক আউট হলে। ১২২ বলে ১১৩ রান করে তিনি সাজঘরে ফিরেন।   



বুলাওয়েতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৩৯৯ রানের ইনিংস গড়েছে পাকিস্তান। ওপেনার ফখর জামান খেলেছেন অপরাজিত ২১০ রানের ইনিংস। ওয়ানডেতে পাকিস্তানের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে ডাবল সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়লেন এই ওপেনার। তাঁর বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ে চতুর্থ ম্যাচে ১ উইকেটে ৩৯৯ রান তুলেছে পাকিস্তান। ওয়ানডেতে এটাই পাকিস্তানের সর্বোচ্চ রানের দলীয় ইনিংস। 


শুধু উদ্বোধনী জুটিতেই নয়। ওয়ানডে ইতিহাসের যে কোনো উইকেটে সর্বোচ্চ রানের জুটির তালিকায় চতুর্থ অবস্থানে চলে এসেছেন ফাখর আর ইমাম। এই তালিকায় সবার উপরে আছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিস গেইল আর মারলন স্যামুয়েলসের জুটিটি। ২০১৫ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ক্যানবেরায় দ্বিতীয় উইকেটে ৩৭২ রানের জুটিতে বিশ্বরেকর্ড গড়েন এই দুজন।


আর পাকিস্তানের ওয়ানডে ইতিহাসে যে কোনো উইকেটে সর্বোচ্চ জুটির রেকর্ডটি ছিল আমির সোহেল আর ইনজামাম-উল-হকের দখলে। ১৯৯৪ সালে শারজাহতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় উইকেটে ২৬৩ রান তুলেছিলেন এই যুগল। এবার সেই রেকর্ডটি ভেঙে দিয়েছেন ইনজামামেরই ভাতিজা ইমাম, সঙ্গী ফাখর জামান।


এই জুটিতে ওপেনিংয়ে পাকিস্তানের রেকর্ড থেকে তারা উঠে গেছেন অনেক উপরে। ২০১১ সালে হারারেতে এই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষেই ২২৮ রানের উদ্বোধনী জুটি গড়েছিলেন মোহাম্মদ হাফিজ আর ইমরান ফরহাদ। এতদিন উদ্বোধনী জুটিতে এটিই ছিল পাকিস্তানের সর্বোচ্চ।



জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে এই সিরিজে প্রথম ম্যাচে ফিফটি করেছিলেন ফখর। পরের ম্যাচে খেলেছিলেন ১১৭ রানের ম্যাচ জেতানো ইনিংস। তৃতীয় ম্যাচেও তাঁকে (৬৮*) আউট করতে পারেনি জিম্বাবুয়ে। আর আজ ফখর খেলেছেন ২১০ রানের অপরাজিত ইনিংস। ১৫৬ বলে ৫ ছক্কা ও ২৪ চারে এই ইনিংস দিয়ে ফখর পাকিস্তানি ক্রিকেটার হিসেবে টপকে গেলেন সাঈদ আনোয়ারের ১৯৪ রানের ইনিংসকে। ওয়ানডেতে এ নিয়ে সাত ব্যাটসম্যান ‘ডাবল সেঞ্চুরি’করলেন। এর মধ্য ফখরেরটি চতুর্থ দ্রুততম-১৪৮ বলে দ্বিশতক তুলে নেন ২৮ বছর বয়সী এই ব্যাটসম্যান।



বুলাওয়ের কুইন্স পার্কে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামা পাকিস্তানের হয়ে শুরুতে অতটা মারমুখী ছিলেন না ফখর। স্ট্রোকের পেখম খুলেছেন ধীরে ধীরে। ফিফটি তুলে নিয়েছেন ৫১ বলে। আর সেঞ্চুরি পেতে লেগেছে ৯২ বল। এরপর ফখরকে আর থামাতে পারেনি জিম্বাবুইয়ান বোলাররা। মুজুরাম্বানি-মাসাকাদজাদের মেরে (পড়ুন বলের) স্রেফ ছাল-চামড়া তুলে দিয়েছেন!


ফখরের সঙ্গে অন্যপ্রান্তে ব্যাটিং করা ইমাম-উল হক খেলেছেন ১১৩ রানের ইনিংস। ওপেনিংয়ে ৩০৪ রানের জুটি গড়েন ইমাম-উল-হক আর ফাখর জামান।   


মুস্তাঈন    

Print