ভারত সরকার বাংলাদেশকে অপমান করছে: মুখ্যমন্ত্রী মমতা  

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক
টাইম নিউজ বিডি,
০২ আগস্ট, ২০১৮ ২১:৪২:৪৮
#

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ও তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, কেন্দ্রীয় সরকার বাংলাদেশকে অপমান করছে। বাংলাদেশ কোনো সন্ত্রাসবাসী দেশ নয়।


অসমে জাতীয় নাগরিকপঞ্জিতে (এনআরসি) ৪০ লাখ লোকের নাম বাদ যাওয়া প্রসঙ্গে বুধবার (০১ জুলাই) মমতা ওই মন্তব্য করেন।


কেন্দ্রীয় সরকার ও বিজেপিকে টার্গেট করে মমতা বলেন, “অসম নিয়ে আমি কথা বলবই। দেখি কে আটকায়! বাংলাদেশকেও অপমান করছে সরকার। বাংলাদেশ কোনো সন্ত্রাসবাসী দেশ নয়। এনআরসি থেকে যাদের নাম বাদ পড়েছে, তাদের অনুপ্রবেশকারী আখ্যা দিয়ে অশান্তি তৈরির চেষ্টা হচ্ছে। তারা মানুষের ওপরে বুলডোজার চালাতে চাচ্ছে। ভয় ও অশান্তির পরিবেশ তৈরি করে সেখানে আধাসেনা পাঠানো হয়েছে।”


তিনি বলেন, “বাংলাদেশ আমাদের প্রতিবেশী দেশ। তাদের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক মধুর। দেশ ভাগের সময় কেউ বাংলাদেশ থেকে, কেউ পাকিস্তান থেকে এসেছেন। তার মানে এটা নয় যে, তারা অবৈধ অনুপ্রবেশকারী।”


এনআরসি নিয়ে যা চলছে, তাতে দু’দেশের মধ্যে জটিলতা সৃষ্টি হবে বলেও তিনি আশঙ্কা করেছেন।


এনআরসি ইস্যুতে মমতা এর আগে বলেছিলেন, অসমে বাঙালি খেদাওয়ের নাম করে গৃহযুদ্ধ বাঁধানোর ষড়যন্ত্র চলছে। এসব মোটেই বরদাস্ত করা হবে না। 


তার ওই মন্তব্যের পরেই বিজেপি’র পক্ষ থেকে তীব্র আপত্তি ও সমালোচনা করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় সংসদবিষয়ক মন্ত্রী অনন্ত কুমার বলেছেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ‘গৃহযুদ্ধ’বাধার কথা বলে প্ররোচনা  দিচ্ছেন। কিছু হলে উনিই দায়ী হবেন।”


মমতা অবশ্য না থেমে পাল্টা জবাবে বলেছেন, “আমরা সব ভাষাকে সম্মান করি। বাংলাভাষী মানুষদের অস্বীকার করা উচিত নয়। এক সময় ভারত ও পাকিস্তান এক ছিল, পরে বিভক্ত হয়েছে।”বিজেপি আগুন নিয়ে খেলছে এবং এরফলে গৃহযুদ্ধের পরিস্থিতি সৃষ্টি হবে বলেও মমতা মন্তব্য করেছেন।


তিনি বিজেপি’র বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মক অবস্থান থেকে পিছিয়ে না এসে গতকাল (বুধবার) বলেন, “আমরা গালির জবাব গালি দিয়ে দিই না। আমি বিজেপি’র চাকর নই যে ওরা যা বলবে তার সাফাই দিতে থাকব।  আপনারা ৪০ লাখ ভোটারকে দেশ থেকে বের করে দেবেন, আপনারা দেশে শান্তি চান, না গৃহযুদ্ধ চান?” 


উত্তেজক বিবৃতি দেয়ার অভিযোগে অসমের কয়েকটি থানায় মমতা বন্দোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে এরইমধ্যে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। মমতা অবশ্য ওই ঘটনাকে বিশেষ আমল দিতে চাচ্ছেন না। বরং এনআরসি ইস্যুতে তার আক্রমণাত্মক মনোভাব অব্যাহত রেখে এনআরসিতে যেসব মানুষের নাম বাদ পড়েছে তাদের পাশে দাঁড়ানোর জোরালো প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন। 


এমবি     

Print