ঢাবির সেই বিতর্কিত নিয়োগ আটকে দিলো সিন্ডিকেট

স্টাফ রিপোর্টার
টাইম নিউজ বিডি,
১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১৬:৩৭:২৪
#

শিক্ষা ছুটি নিয়ে বিদেশ যাওয়ার পর নোটিশ দিলেও যোগদান না করায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই শিক্ষককে চাকরি থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। আটকে দেয়া হয়েছে সমাজবিজ্ঞান বিভাগের সেই বিতর্কিত প্রার্থীর নিয়োগ। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের আসন্ন ৫১তম সমাবর্তনের পূর্বনির্ধারিত বক্তা পরিবর্তন হয়েছে।


সোমবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেটের সভায় এসব সিদ্ধান্ত নেয়া হয় বলে সিন্ডিকেটের একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে।


চাকরি হারানো দুই শিক্ষক হলেন অর্থনীতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মাশফিকুর রহমান খান ও উন্নয়ন অধ্যয়ন বিভাগের প্রভাষক তামান্না আফরিন রিমি।


একই ইস্যুতে বেশ কয়েকজন শিক্ষককে চাকরিতে যোগদান করতে ৮ সপ্তাহের সময় দেয়া হয়েছে।


সমাজবিজ্ঞান বিভাগে প্রভাষক পদে নিয়োগে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ উঠায় একজনের নিয়োগ বাদ দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ নীতি-নির্ধারণী বোর্ড সিন্ডিকেট। এর আগে এ নিয়োগের অসঙ্গতি নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ হয় বিভিন্ন গণমাধ্যমে।


নিয়োগে বাদ পড়া প্রার্থীর নাম এস এম ফাইজুল হক ইশান। তার থিসিস সুপারভাইজার ছিলেন সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম। তাকে বিভাগ কর্তৃক ইচ্ছাকৃত শিক্ষক বানানোর প্রচেষ্টা চালানো হয়েছিল বলে বাকি নিয়োগপ্রার্থীদের অভিযোগ ছিল।


সূত্র জানায়, সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে সিন্ডিকেটের সভা বসে। রাত ৯টায় এ সভা শেষ হয়। সভায় সদস্যদের মতামতের ভিত্তিতে ভিসি অধ্যাপক আখতারুজ্জামান ইশানের এ নিয়োগ বাদ দেন। তবে বাকি দুজনকে প্রভাষক পদে স্থায়ী নিয়োগ দিয়েছে সিন্ডিকেট। নিয়োগপ্রাপ্ত সে দু’জন হলেন- ইসরাত জাহান ইয়ামুন ও ওয়াসিফা তাসনীম শাম্মা। তাদের মধ্যে ইয়ামুনের অনার্স ও মাস্টার্সের সিজিপিএ যথাক্রমে ৩ দশমিক ৭৪ ও ৩ দশমিক ৮৮, ওয়াসফিয়া শাম্মার সিজিপিএ যথাক্রমে ৩ দশমিক ৭২ ও ৩ দশমিক ৮৩। তারা দুজনই অনার্স ও মাস্টার্সে মেধাক্রমে প্রথম।


অন্যদিকে সমাবর্তন বক্তা নির্ধারণ করা হয়েছে জাতীয় অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামানকে। এর আগে গত ৩০ এপ্রিল সিন্ডিকেট সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এবারের ‘সমাবর্তন বক্তা’ হিসেবে লাইবেরিয়ার নোবেল শান্তি পুরস্কারপ্রাপ্ত মিজ. লেমাহ গবায়েইকে আমন্ত্রণ জানানোর প্রস্তাব করা হয়েছে। উক্ত সমাবর্তন অনুষ্ঠানে তাকে ডক্টর অব লজ ডিগ্রি প্রদানেরও সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। তবে অনিবার্য কারণে মিজ. লেমাহ সমাবর্তন বক্তা হিসেবে থাকতে না পারায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

Print