চীন-মার্কিন বাণিজ্য যুদ্ধে বিপজ্জনক হবে বিশ্ব!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
টাইম নিউজ বিডি,
১০ অক্টোবর, ২০১৮ ১৪:২৫:৩৬
#

যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে চলমান বাণিজ্য-যুদ্ধ বিশ্বকে আরও ‘গরিব ও বিপজ্জনক’ করে তুলবে।


আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল সংস্থার (আইএমএফ) বৈশ্বিক অর্থনীতিবিষয়ক সর্বশেষ মূল্যায়নে এমন হুশিয়ারি দেয়া হয়েছে।


সোমবার প্রকাশিত বৈশ্বিক অর্থনীতির ত্রৈমাসিক পূর্বাভাসে বাণিজ্য-যুদ্ধের পরিণতির বিষয়ে বিশ্বকে সতর্ক করা হয়।
বিবিসি জানায়, আইএমএফ চলতি ও আগামী বছরে বিশ্ব অর্থনীতি ধসের বিষয়ে সতর্ক করে দিয়েছে। বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে চলা বাণিজ্য-যুদ্ধ অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারের ক্ষেত্রে একটা মারাত্মক বাধা হয়ে দাঁড়াবে।


বৈশ্বিক প্রবৃদ্ধি কমে ৩.৭ শতাংশে দাঁড়াবে বলে আইএমএফের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে। অর্থনৈতিক ঝুঁকির ঊর্ধ্বগতিতে বাণিজ্য চিন্তা ও ঋণের মাত্রার কারণে বৈশ্বিক অর্থনৈতিক সংস্থাটির পূর্বাভাসে প্রবৃদ্ধি কমেছে।


প্রতিবেদনের পূর্বাভাসে দেখা যায়, যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের বাণিজ্য-যুদ্ধের কারণে বৈশ্বিক জিডিপি কমে চলতি বছরে ১০ ভাগের ২ ভাগ বা ৩ দশমিক ৭ শতাংশে দাঁড়াবে। পরবর্তী বছর ২০১৯ সালে এ ঝুঁকি আরও বাড়বে। জুলাইয়ের প্রতিবেদনে সংস্থাটির প্রবৃদ্ধির পূর্বাভাস ছিল ৩ দশমিক ৯ শতাংশ।


জুলাইয়ের প্রতিবেদনের সঙ্গে তুলনা করে চলতি বছর ও আগামী বছরের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির পূর্বাভাস করা হয়েছে। এতে ক্ষয়িষ্ণু পূর্বাভাস করা হয়েছে উন্নয়নশীল অর্থনীতির দেশগুলোর ক্ষেত্রেও।


মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রতিশোধপরায়ণ নীতি ও শুল্কারোপের কারণে যে বাণিজ্য দ্বন্দ্ব শুরু হয়েছে, তাতে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে চীন ও অন্যান্য এশীয় দেশের অর্থনীতি।


বিশেষ করে ব্রাজিল, এশিয়ার দেশ আফগানিস্তান, তুরস্কে ভয়াবহ পরিস্থিতি তৈরি হচ্ছে। পূর্বাভাসে ইউরোপের দেশ ও ব্রিটেনের ক্ষেত্রেও প্রবৃদ্ধি কমেছে। বলা হচ্ছে- এমন প্রবৃদ্ধির কারণে প্রধানতম কয়েকটি অর্থনীতির আকার ছোট হতে পারে।


আইএমএফ’র প্রধান অর্থনীতিবিদ মাউরি অবসফিল্ড বলেন, যদি নতুন করে কোনো বাণিজ্য নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়, তাহলে সেটা নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য, ব্যবসা ও বৃহত্তর অর্থনীতির জন্য মারাত্মক হুমকির কারণ হয়ে দাঁড়াবে। তিনি আরও বলেন, ‘বাণিজ্য নীতির প্রতিফলন হল রাজনীতি। আর এ রাজনীতি অনেক দেশে এখন স্বাভাবিক অবস্থায় নেই। এএস

Print