ঠিক কখন বুঝবেন আপনার বিয়ে করা দরকার?

টাইম ডেস্ক
টাইম নিউজ বিডি,
১৫ অক্টোবর, ২০১৮ ২১:১৮:২৮
#

সর্ম্পকে জড়ানোর পরেই হোক আর পরিবারের পছন্দেই হোক বিয়ে নিয়ে স্বপ্ন দেখা যত সহজ, বিয়ে করা কিন্তু অতটা সহজ নয়। বর্তমানে বিয়ে মানেই দুই পরিবারে রাজি হওয়া, কেনাকাটা, অনুষ্ঠান, হানিমুনের বাজেট তৈরি, বিয়ের পরের দাওয়াতে যাওয়া, দুজনের বনিবনা হওয়া এবং আরও নানা ঝামেলা। তাই হুট করে বিয়ের সিদ্ধান্ত নেয়ার সাহস করাটা বেশ কঠিন। কিন্তু বিয়ে তো করতেই হবে। তাই ভয় বা শঙ্কায় না থেকে দেখা উচিত যে বিয়ের জন্য আসলেই প্রস্তুত কিনা আপনি।


মতের মিল ও গ্রহণ করার ক্ষমতা: বিয়ের সিদ্ধান্ত নেয়ার আগে নিজেকে প্রশ্ন করে নিন, আপনি আপনার সঙ্গীর বিভিন্ন দিকগুলো সহজে গ্রহণ করতে পারবেন কিনা। তার আকাঙ্ক্ষা, দুর্বলতা, অভ্যাস এবং মনমালিন্য হলে মানিয়ে নেয়ার জন্য আপনি প্রস্তুত কিনা, সেটা ভেবে দেখুন। যদি পছন্দের মানুষ থাকে, তাহলে তার মত নিন বিয়ের ব্যাপারে। দুজনের মত মিললে বিয়ের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিন। কারণ সংসারে দুজনকেই মানিয়ে চলতে হবে। কেউ কারও ওপর জোর করে কিছু চাপিয়ে দিলে দুজনের সম্পর্ক নষ্ট হয়।


লক্ষ্য নির্ধারণ: লক্ষ্য ছাড়া পথভ্রষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তাই বিয়ের সিদ্ধান্ত নেয়ার আগে ভেবে দেখুন আপনার লক্ষ্য কী? সঙ্গী হিসেবে আপনি কেমন মানুষ চাইছেন সেটা আগে ভেবে নিন। প্রয়োজনে প্রিয় মানুষটির সঙ্গে বসে পরিকল্পনা করুন। নিজের লক্ষ্যের ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী হতে পারলে বুঝবেন বিয়ের সিদ্ধান্ত নেয়ার সময় হয়েছে আপনার।



‘পারফেক্ট কেমিস্ট্রি’: যে মানুষটিকে আপনি ভালোবাসেন কিংবা পরিবার থেকে আপনার জন্য যাকে পছন্দ করা হয়েছে তার সঙ্গে কিছুটা হলেও সময় কাটান। তার সঙ্গে কথা বলতে যদি আপনি সহজ ও সাবলীল বোধ করেন, আপনার মনে হয় যে এই মানুষটিকেই আপনি খুঁজছিলেন, তাহলে বিয়ের সিদ্ধান্ত নিতে পারেন।


নিরাপত্তা: বিয়ের জন্য আর্থিক এবং মানসিক। নিজেকে গুছিয়ে নেয়ার আগে আবেগের বশে বিয়ের সিদ্ধান্ত নিলে জীবন এলোমেলো হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। ঠিক একইভাবে যাকে বিয়ে করতে চাইছেন তার সঙ্গে সম্পর্কটা যদি নিরাপদ মনে হয় তাহলে বিয়ের সিদ্ধান্ত নেয়া উচিত। মনে কোনো সন্দেহ থাকলে কিংবা সম্পর্ক নড়বড়ে হলে বিয়ের সিদ্ধান্ত নেয়া উচিত নয়।


পুরোনো সম্পর্কের প্রতি অনুভূতি: বিয়ের আগে মন থেকে পুরোনো সব সম্পর্কের স্মৃতি মুছতে না পারলে দাম্পত্য জীবনে সমস্যা হতে পারে। তাই বিয়ের সিদ্ধান্ত নেয়ার আগে ভেবে দেখুন যে, পুরোনো কোনো সম্পর্কের প্রতি এখনও আপনার দুর্বলতা আছে কিনা। যদি না থাকে, তাহলে বিয়ের সিদ্ধান্ত নেয়ার সময় হয়েছে আপনার। সুইর্লস্টেল।


এসএম

Print