রাজশাহী অঞ্চল দিয়ে বেড়েছে অস্ত্র চোরাচালান

টাইম ডেস্ক
টাইম নিউজ বিডি,
০৬ নভেম্বর, ২০১৮ ২৩:০৬:৩৯
#

আসন্ন সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে রাজশাহী অঞ্চলের সীমান্ত দিয়ে বেড়ে গেছে অবৈধ অস্ত্রের চোরাচালান। তবে অস্ত্র ব্যবসায়ীরা প্রতিনিয়ত কৌশল পরিবর্তন করায় তাদের সঙ্গে পেরে ওঠা কঠিন হয়ে পড়ছে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর। সম্প্রতি র‍্যাব ও পুলিশের অভিযানে বিপুল সংখ্যক পিস্তল ও গুলিসহ বেশ কয়েকজন অস্ত্র ব্যবসায়ীকে আটকের পর জিজ্ঞাসাবাদে বেরিয়ে আসে এমন তথ্য।


এ অবস্থায় সীমান্তে নজরদারী বাড়ানোর পাশাপাশি অবৈধ অস্ত্র চোরাচালান বন্ধে তৎপর থাকার কথা জানায় বিজিবি সদস্যরা।

দিনে সুনসান, আর রাত হলেই অশান্ত হয়ে ওঠে সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়াকে ঘিরে চোরাকারবারিদের তৎপরতা। সীমান্ত রক্ষীর চোখ ফাঁকি দিয়ে মাদক, অবৈধ অস্ত্র ও গোলাবারুদ প্রবেশ করছে দেশে। এরপর রাজশাহীর খানপুর, খিদিরপুর, চর মাজারদিয়া ও আলাইপুর সীমান্ত পেরিয়ে ঢুকে পড়ে শহরে। আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে দেশকে অস্থিতিশীল করতে একটি মহল এসব অস্ত্র কিনছে। সম্প্রতি আটককৃত বেশ কয়েকজনের কাছ থেকে এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য পায় র‍্যাব।

র‍্যাব-৫ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল মাহাবুব আলম বলেন, 'বিভিন্ন আন্ডারগ্রাউন্ড পার্টির কাছে, বিভিন্ন সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর কাছে যারা অস্ত্র সরবরাহ করে থাকে তাদের ওপর আমাদের কড়া নজরদারি আছে।'

এদিকে, পুলিশও বলছে একই কথা। এমন পরিস্থিতিতে সীমান্তবর্তী থানাগুলোতে তৎপরতা বাড়ানো হয়েছে বলে জানান জেলা ও নগর পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

রাজশাহী পুলিশ সুপার মো. শহিদুল্লাহ বলেন, 'সীমান্ত দিয়ে কোন অস্ত্র ঢুকছে কিনা সেটা আমরা খেলায় রাখছি। আমরা তৎপরতার আছি এবং এ ধরণের কোন ঘটনা যাতে না ঘটে সেজন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি।'


আরএমপির উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিবি) আবু আহাম্মদ আল মামুন বলেন, 'অনেক মাদকব্যবসায়ী এবং বড় কিছু সন্ত্রাসী আমরা গ্রেপ্তার করেছি। তাদের কাছ থেকে আমরা অস্ত্র উদ্ধার করেছি। তাদের আইনের আওতায় এনেছি। আমাদের কাছে আরো তথ্য আছে। আমরা সামনে আরো বড় বড় অভিযান চালাবো।'

এ অবস্থায় সীমান্তে নজরদারি আরও জোরদার করার কথা জানান '১ বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ'র অধিনায়ক মোহম্মদ তাজুল ইসলাম।

তিনি বলেন, 'মাদক এবং আগ্নেয়াস্ত্র পাচার রোধে আমাদের জিরো টলারেন্স নীতিসহ টহল তৎপরতা বৃদ্ধি করা হয়েছে যা নির্বাচনকালীন সময়েও চলমান থাকবে।'

গত ছয় মাসে র‍্যাব ৪০টি আগ্নেয়াস্ত্র ও তিনশো রাউন্ড গুলিসহ ৩৫ জন অস্ত্র ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করে। আর মহানগর ও জেলা পুলিশের অভিযানে পঁচিশটি পিস্তলসহ গ্রেপ্তার হয় অন্তত ২৩ জনকে।

Print