কেন অ্যাটর্নি জেনারেলকে বহিষ্কার করলেন ট্রাম্প?

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
টাইম নিউজ বিডি,
০৮ নভেম্বর, ২০১৮ ১৪:৪৪:২৬
#

যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাটর্নি জেনারেল জেফ সেশনস’কে বহিষ্কার করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।


বুধবার বেলা ১১টা ৪৪ মিনিটে নিজের টুইটারে অ্যাকাউন্টে দেয়া এক পোস্টে বিষয়টি নিশ্চিত করেন তিনি।


তিনি লেখেন, আমরা এই ঘোষণা দিতে পেরে খুশি যে সেশনস’কে অস্থায়ীভাবে সরিয়ে চিফ অব স্টাফ মাথ্যু হুইটেকারকে দায়িত্ব দেয়া হবে। তিনি আমাদের দেশের জন্য আরও ভালো কাজ করবেন।


আরেকটি পোস্টে লেখেন, আমারা অ্যাটর্নি জেনারেল জেফ সেশনস’কে তার কাজের জন্য ধন্যবাদ এবং একই সঙ্গে শুভকামনা জানাচ্ছি। পরবর্তীতে এই পদে আরেকজনকে স্থায়ীভাবে নিযুক্ত করা হবে।


সেশনস’কে বরখাস্তের ঘটনাটি যে খুব স্বাভাবিক প্রক্রিয়াই ঘটেছে তা মোটেও নয়। তারিখবিহীন একটি পদত্যাগপত্রে স্পষ্ট ধরা পড়েছে যে স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করেননি তিনি।


আলাবামার সাবেক এই সিনেটর আগে ট্রাম্পের সমর্থক ছিলেন। তিনি এই চিঠিতে লেখেন, প্রিয় প্রেসিডেন্ট আপনার অনুরোধে আমি আমার পদত্যাগপত্র জমা দিচ্ছি।


প্রেসিডেন্টকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি লেখেন, সবচেয়ে বড় কথা আমি অ্যাটর্নি জেনারেল থাকার সময় আমরা আইনের শাসনকে বলবৎ রেখেছি।


বিবিসি’তে প্রকাশিত এ সংক্রান্ত এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সেশনস’র সঙ্গে বিবাদ শুরু হয়েছিল ২০১৭ সালের মার্চ মাসে। তখনই সেশনস রাশিয়ার হস্তক্ষেপের বিষয়ে যে তদন্ত হচ্ছিল, সেখান থেকে সরে আসেন।


এরপর থেকেই বিভিন্ন সময় প্রকাশ্যে যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ এই আইনপ্রণেতার বিরুদ্ধে নানা ধরনের সমালোচনামূলক কথা বলতে থাকেন প্রেসিডেন্ট। ২০১৭ সালে নিউ ইয়র্ক টাইমস’কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ট্রাম্প বলেন, তিনি তদন্ত থেকে সরে যাবেন এ কথা আমাকে আগে বললে তাকে এই দায়িত্ব দিতাম না। আমি অন্য কাউকে এই দায়িত্ব দিতাম।


আগে থেকেই গুঞ্জন ছিল, নভেম্বরের মধ্যবর্তী নির্বাচনের পরেই হয়ত সেশনস’কে বরখাস্ত করা হতে পারে। আর সেটাই এখন সত্য হলো।


জেড

Print