‘দেশের সার্বিক উন্নয়নে নৈতিক শিক্ষার প্রসার অত্যন্ত জরুরী’

স্টাফ রিপোর্টার
টাইম নিউজ বিডি,
০৮ নভেম্বর, ২০১৮ ২৩:৪১:২৭
#

বাংলাদেশ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় স্টাডি ফোরামের উদ্যোগে আজ  বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের অডিটোরিয়ামে পিএইচডি ডিগ্রী প্রাপ্তদের সংবর্ধনা প্রদান করা হয়।


বাংলাদেশ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর শের মোহাম্মদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাষ্টী বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর মাওলানা কামাল উদ্দিন আব্দুল্লাহ জাফরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার বিচারপতি আব্দুর রউফ। আরো বক্তব্য দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাষ্টী বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. আ ন ম রফীকুর রহমান মাদানী, মেম্বার সেক্রেটারী সাইয়েদ শহিদুল বারী, রেজিস্টার প্রফেসর মোহাম্মদ ইউসুফ, প্রফেসর ড. এ বি এম মাহবুবুল ইসলাম, প্রফেসর ড. আর্শেদ আলী মাতুব্বর, স্টাডি ফোরামের সভাপতি ড. আব্দুল মান্নান, শামছুর রহমান, জাহিদুর রহমান, ইকবাল মাহমুদ প্রমুখ।


প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, লক্ষ্যহীন মানুষ জীবনে উন্নতি করতে পারেনা। মেধা, যোগ্যতা, বিচক্ষণতা যেহেতু আল্লাহর দান সেহেতু এগুলো তার কাজেই ব্যবহার করতে হবে। বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে দেশের সার্বিক উন্নয়নে নৈতিক শিক্ষার প্রসার অত্যন্ত জরুরি। তাই আমাদেরকে ভোগবাদী নীতি পরিহার করে সবার আগে নৈতিক শিক্ষায় বলিয়ান হতে হবে। আগামীদিনে দেশকে নেতৃত্ব দিতে হলে মেধা ও যোগ্যতার সমন্ধয়ে দেশের সুনাগরিক হিসেবে গড়ে উঠতে হবে। সেজন্য নৈতিক মানোন্নয়ন ও পার্থিব যোগ্যতা বৃদ্ধি করে দেশ ও ইসলামের সেবায় নিজেদেরকে আত্মনিয়োগ করতে হবে।


বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার বিচারপতি আব্দুর রউফ বলেন, প্রাকৃতিক সম্পদে পরিপূর্ণ বাংলাদেশকে এগিয়ে নেয়ার জন্যে মেধাবীদেরকে অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে। আমাদের অজস্র সম্পদ থাকলেও মেধাবী ও দক্ষ জনবলের অভাবে তা কাজে লাগাতে পারছি না। তিনি পিএচডি ডিগ্রিধারীদের উদ্দেশে বলেন, ‘আপনাদের তিনটি দায়িত্ব আছে। আপনার পরিবারের স্বপ্নপূরণে কাজ করতে হবে। তবে ভেঙে পড়া চলবে না। বিপদে-আপদে অসত্য ও বাঁকা পথে হাঁটা যাবে না। মনে রাখবেন আপনারা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়া-লেখা করেছেন দেশের খেটে খাওয়া মানুষের পয়সা দিয়ে।’ তাই প্রত্যেককে দেশপ্রেম ও মানবিক মূল্যবোধ সহকারে এ দেশের মানুষের জন্য, সমাজের জন্য কাজ করতে হবে।


এসএম

Print