‘আইনে সুযোগ নেই, তবে ইসি চাইলে পারে’

স্টাফ রিপোর্টার
টাইম নিউজ বিডি,
১১ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:৩৪:০৫
#

আইন অনুসারে জোটবদ্ধ হয়ে নির্বাচনের তথ্য জানানোর সময় বাড়ানো এবং ভোটগ্রহণের তারিখ পেছানোর কোনো পরিকল্পনা কমিশনের নেই বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ।



শনিবার বিকেলে আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনের নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা জানান।


জোটবদ্ধ হয়ে নির্বাচনের তথ্য দিতে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সময় বাড়ানোর দাবি জানিয়েছেন— সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ইসি সচিব বলেন, ‘গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ অনুযায়ী আগামীকাল রোববারের মধ্যে দলগুলোকে জোটের তথ্য ইসিতে দিতে হবে। আইনে এটা পেছানোর সুযোগ নেই। এক্ষেত্রে জোটের তথ্য না দিলে নিজ দলের প্রতীকে নির্বাচন করতে হবে। আর সময় বাড়ানোর কোনো আবেদন এখনও আমরা পাইনি। তবে দলগুলো সময় বাড়ানোর আবেদন করলে নির্বাচন কমিশন চাইলে সময় বাড়াতে পারে। তাদের হাতে অগাধ ক্ষমতা রয়েছে।’


ভোটের তারিখ পেছানোর বিষয়ে বিএনপির দাবি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘নির্বাচন কমিশন একটি তফসিল দিয়েছে। এখন পর্যন্ত ভোটের তারিখ পেছানোর কোনো চিন্তা নেই। তবে সবগুলো দল চাইলে নির্বাচন কমিশন সিদ্ধান্ত নেবে।’


হেলালুদ্দীন আহমদ জানান, আগামী মঙ্গলবার থেকে রিটার্নিং কর্মকর্তা (জেলা প্রশাসক) এবং তার তিন দিন পর সহাকারী রিটার্নিং কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ দেয়া হবে।


আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতির বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা প্রত্যেক রিটার্নিং কর্মকর্তা এবং আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে বলে দিয়েছি, তারা এ বিষয়ে যথাযথ ব্যবস্থা নেবে।’


ইসি সচিব জানান, সাত দিনের মধ্যে সকল প্রচার সামগ্রী সরিয়ে ফেলতে বলা হয়েছে। এ সময় পার হওয়ার পর আমরা ব্যবস্থা নেব।


দলগুলোর মনোনয়নপত্র বিক্রি উপলক্ষ্যে বিশৃঙ্খলার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘রাজনৈতিক দলগুলো একটি এরিয়ার মধ্যে মনোনয়ন ফরম বিক্রি করবে। এতে আচরণবিধি প্রতিপালন না হওয়ার কিছু দেখছি না।’


ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশ নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে ইসি সচিব বলেন, ‘যেসব সমাবেশ হয়েছে, তারা আগে থেকেই অনুমতি নিয়ে রেখেছিল। কিন্তু, নতুন করে তাদের আর কোনো সমাবেশ করার অনুমতি দেয়া হবে না।’


তিনি বলেন, ‘ভোটতো এদেশে উৎসব। তবে আচরণবিধি যেন ভঙ্গ না হয়, সেজন্য পর্যাপ্ত সংখ্যক ম্যাজিস্ট্রেট মাঠে নামানোর নির্দেশনা রয়েছে। রিটার্নিং কর্মকর্তাদের বলেছি, তারা ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োজিত করবেন এবং ব্যবস্থা নেবেন। দলগুলো যাতে আচরণবিধি মেনে চলেন এজন্য মনোনয়নপত্র কেনার সময় আমরা আচরণবিধি তুলে দেব।’


এসএম

Print