পারিবারিক নেতৃত্ব ধরে রাখতে বরিশালে ১৯ নারী মনোনয়নপত্র কিনেছেন

টাইম ডেস্ক
টাইম নিউজ বিডি,
১৮ নভেম্বর, ২০১৮ ১৬:০০:০২
#

বরিশালের ২১ আসনের মধ্যে ১০টিতে আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টি থেকে ১৯ নারী প্রার্থী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। এদের বেশিরভাগ নারী স্বামী ও বাবার অবর্তমানে স্থানীয় নেতৃত্ব ধরে রাখতেই রাজনীতিতে সক্রিয় হয়েছেন। এমনকি তারা মনোনয়ন যুদ্ধে টিকে থাকতে পুরুষ প্রার্থীদের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করে প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছেন।


বরিশাল জেলায় ৬ আসনের মধ্যে ৪টি থেকে আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টি থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী রয়েছেন ৬ নারী। এর মধ্যে ৩ জনই হেভিওয়েট প্রার্থী। তারা হলেন, সাবেক সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী সেলিমা রহমান, সাবেক এমপি বিলকিস জাহান শিরীন ও জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য বর্তমান এমপি রত্না আমিন। বরিশাল-২ (বানারীপাড়া-উজিরপুর) আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপত্র ক্রয় করেছেন রুবিনা আক্তার মিরা। গত ৪/৫মাস ধরেই তিনি প্রচার চালাচ্ছেন। সেখানে আওয়ামী লীগের বর্তমান এমপি পুরুষ প্রার্থীর সঙ্গে সমান তালে প্রচার চালিয়েছেন। এসময় তিনি ওই এলাকার বাসিন্দাদের জানিয়েছেন নির্বাচনে প্রার্থী হতে চান। তারপরও মনোনয়ন না পেলে আওয়ামী লীগ থেকে যাকে মনোনয়ন করা হবে তার পক্ষে কাজ করবেন বলে জানান মিরা।


বরিশাল-৩ (বাবুগঞ্জ-মুলাদী) আসন থেকে বিএনপির মনোনয়নপত্র কিনেছেন দলের সিনিয়র নেত্রী সেলিমা রহমান। ২০১৭ সালের নির্বাচনে ওই আসনে বিদ্রোহী প্রার্থী থাকায় তিনি পরাজিত হন। বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালে সেলিমা রহমান টেকনোক্র্যাট প্রতিমন্ত্রী ছিলেন। বাবুগঞ্জ-মুলাদীতে সেলিমা প্রচার চালাচ্ছেন।


তিনি বলেন, ‘দল থেকে মনোনয়ন দেওয়া হলে এবং নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলে আগামী নির্বাচনে তিনি নির্বাচিত হবেন। কারণ বিএনপি সরকারে থাকাকালীন বাবুগঞ্জ ও মুলাদীর উন্নয়নে কাজ করেছেন। বর্তমান সরকারের আমলে তেমন কোনও উন্নয়ন হয়নি।’


বরিশাল-৪ (মেহেন্দীগঞ্জ-হিজলা) আসন থেকে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী সাবেক এমপি মহিউদ্দিন আহমদের মেয়ে ড. শাম্মী আহমেদ। তিনি কেন্দ্রীয় মহিলা লীগের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক। বাবার রাজনীতি ধরে রাখতে ড. শাম্মী আগামী নির্বাচনে অংশ নিতে চান।


বরিশাল-৫ (সদর) আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী বর্তমান এমপি জেবুন্নেছা আফরোজ। তিনি সাবেক মেয়র শওকত হোসেন হিরনের স্ত্রী। গত নির্বাচনে স্বামীর আসন থেকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন। 


বরিশাল-৪ ও ৫ আসন থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরিন। বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালে সংরক্ষিত আসনের এমপি ছিলেন তিনি। শিরিনের দাবি পুরুষের চেয়ে নারীরা এলাকার উন্নয়নে কাজ করতে বেশি সমর্থ। নারীরা যে প্রতিশ্রুতি দেন তা শতভাগ বাস্তবায়নের চেষ্টা করেন। যা পুরুষ প্রার্থীদের মাঝে তেমন একটা দেখা যায় না। এ  আসন থেকে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক আফরোজা খানম নাসরিন।


বরিশাল-৬ (বাকেরগঞ্জ) আসনে জাতীয় পার্টি থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী বেগম নাসরিন জাহান রত্না। তিনি জাতীয় পার্টির মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদারের স্ত্রী। রত্না একবার সংরক্ষিত এবং গত নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন। এছাড়া তিনি একবার বাকেরগঞ্জ পৌরসভার মেয়রও ছিলেন। এ আসনে আওয়ামী লীগ থেকে পুরুষ প্রার্থীদের পাশাপাশি মনোনয়ন চাইছেন সাবেক এমপি প্রয়াত মাসুদ রেজার স্ত্রী আইরিন রেজা। তিনি মনোনয়নপত্র ক্রয় করেছেন। আইরিন বরিশাল জেলা পরিষদের সদস্য এবং প্যানেল চেয়ারম্যান।


পটুয়াখালী-১ (মির্জাগঞ্জ-সদর দুমকি) আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চাইছেন নাজনীন নাহার লাইজু। তিনি সাবেক এমপি হাবিবুর রহমানের মেয়ে। এছাড়া পটুয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী কানিজ সুলতানা হেলেনও দল থেকে মনোনয়ন চাইছেন।


পটুয়াখালী-৪ (কলাপাড়া রাঙ্গাবালি) আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চাইছেন এমপি মাহাবুবুর রহমানের ফুফাতো ভাইয়ের স্ত্রী ফাতেমা আক্তার। এ আসন থেকে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন চাইছেন মাহিনুর আক্তার মাহি। তিনি ঢাকার শাহাবাগ থানা আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা।


ঝালকাঠি-১ (রাজাপুর-কাঠালিয়া) আসনে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন চাইছেন স্ট্যামফোর্ড ইউনিভার্সিটির চেয়ারম্যান ফাতিনাজ ফিরোজ ও কেশোয়ারা সুলতানা। এ আসনে বিএনপি থেকে মনোনয়নপত্র ক্রয় করেছেন মমতাজ বেগম।


ঝালকাঠি-২ (সদর-নলছিটি) আসনে বিএনপি থেকে মনোনয়ন চাইছেন সাবেক এমপি ইসরাত সুলতানা ইলেন ভুট্টো। সংস্কারপন্থী হওয়ায় দল থেকে বহিষ্কার করা হয়। সম্প্রতি ইলেনকে দলে ফিরিয়ে আনা হয়। ইলেনের স্বামী ওই আসনের জনপ্রিয় নেতা জুলফিকার আলী ভুট্টোর মৃত্যুর পর ইলেন বিএনপি থেকে নির্বাচনে অংশ নিয়ে বিপুল ভোটে এমপি নির্বাচিত হন। এবারও স্বামীর জনপ্রিয়তা কাজে লাগাতে চান ইলেন।


পিরোজপুর-১ (সদর-স্বরূপকাঠী-নাজিরপুর) আসন থেকে নির্বাচনে অংশ নিতে চান শেখ এ্যানি রহমান। তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আপন চাচাতো ভাই হাফিজুর রহমান টোকনের স্ত্রী। গত এক বছর ধরে তিনি প্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন।


বরগুনা-২ (পাথরঘাটা-বামনা-বেতাগী) আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চাইছেন কেন্দ্রীয় মহিলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নাসিমা ফেরদৌসি। তিনি বর্তমানে সংরক্ষিত আসনের এমপি। এছাড়া এমপি গোলাম সবুর টুলুর মেয়ে ফারজানা সবুর রুমকিও ওই আসন থেকে মনোনয়ন চাইছেন। এ কারণে ঢাকা থেকে এলাকায় এসে প্রচার-প্রচারনাও চালিয়েছেন। বাবার রাজনীতি ধরে রাখতে চাইছেন রুমকি।


এ ব্যাপারে বরিশাল মহিলা পরিষদের সহ-সভাপতি অধ্যাপিকা শাহ সাজেদা বলেন, ‘এ বছর নির্বাচনে অংশ নিতে নারীরা যেভাবে এগিয়ে এসেছেন গত নির্বাচনগুলোতে সেভাবে উপস্থিতি ছিল না। বিষয়টি পজেটিভ। এজন্য রাজনৈতিক দলগুলোকে পুরুষ ও নারীদের মাঝে সমতা আনতে হবে। এতে করে নারী নেতৃত্ব বিকশিত হবে এবং তারা দক্ষতা মাঠ পর্যায়ে কাজ লাগাতে সক্ষম হবে।’


এসএম

Print