শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ইংল্যান্ডের সিরিজ জয়

স্পোর্টস ডেস্ক
টাইম নিউজ বিডি,
১৮ নভেম্বর, ২০১৮ ১৮:০০:৪৬
#

রোববার সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের পঞ্চম দিন জয় পেতে লঙ্কানদের প্রয়োজন ছিল ৭৫ রান। আর ইংলিশদের প্রয়োজন ছিল ৩ উইকেট। হাথুরুসিংহের শিষ্যরা প্রয়োজনীয় রান না করতে পারলেও সফরকারীরা ঠিকই ৩ উইকেট তুলে ৫৭ রানে টেস্ট জিতে নিয়েছে। ফলে এক টেস্ট হাতে রেখেই সিরিজ ২-০ ব্যবধানে জিতেছে জো রুটের দল।



চতুর্থ দিনের খেলা যখন শেষ হয়, তখন ম্যাচ হেলেছিল ইংল্যান্ডের দিকেই। পঞ্চম দিন সকালেই মঈন আলীর ঘূর্ণিতে আউট হয়ে যান নিরোশান ডিকভেলা (৩৫)। দিনের পঞ্চম ওভারের প্রথম বলেই স্লিপে ডিকভেলাকে বেন স্টোকসের ক্যাচে পরিণত করেন মঈন। ওই ওভারেরই তৃতীয় বলে নবম উইকেট হিসেবে আউট হন অধিনায়ক সুরাঙ্গা লাকমাল (০)। আর ম্যালিন্ডা পুষ্পাকুমারাকে আউট করে লঙ্কান ইনিংসের ইতি টানেন জ্যাক লিচ।


এর আগে ৩০১ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতেই বিপদে পড়ে যায় স্বাগতিকরা। লঙ্কানদের কাপিয়ে দেন লিচ। তার তোপের মুখে মাত্র ২৬ রানের মধ্যেই হারিয়ে ফেলে ৩ উইকেট। ৩টি উইকেটই তুলে নেন এই বাঁ-হাতি স্পিনার। করুণারত্নে ও আঞ্জেলো ম্যাথুস মিলে চেষ্টা করেন এই বিপদ কাটিয়ে উঠার। সেই চেষ্টায় অনেকটা সফলও হন তারা। চতুর্থ উইকেটে দুজনে গড়েন ৭৭ রানের জুটি। ৫৭ রান করা করুণারত্নেকে ফিরিয়ে দিয়ে এই জুটি ভাঙ্গেন ইংল্যান্ডের আরেক স্পিনার আদিল রশিদ। এরপর ম্যাথুস ও রোসেন সিলভা মিলে পঞ্চম উইকেটে গড়েন ৭৩ রানের জুটি। ৩৭ রান করা সিলভাকে বিদায় করে এই জুটি খসান অন্য আরেক স্পিনার মঈন।


তারপরও বেশ ভালো অবস্থানেই ছিল শ্রীলঙ্কা। চা বিরতির সময় শ্রীলঙ্কার দরকার ছিল ৮২ রান। হাতে ছিল ৫টি উইকেট। তার চেয়েও বড় কথা, আশার প্রতীক হয়ে তখনো উইকেটে ছিলেন ম্যাথুস।


কিন্তু চা বিরতির পর খেলা মাঠে গড়াতেই শ্রীলঙ্কাকে ব্যাক-ফুটে ঠেলে দেন মঈন। ফিরিয়ে দেন জয় পথের বড় কাটা হয়ে উঠা ম্যাথুসকে। ম্যাথুস আউট হন ৮৮ রান করে। তার একটু পরই দিলরুয়ান পেরেরাকে ফেরান লিচ। মানে চা বিরতির পর ২০ বলের মধ্যেই ২ উইকেট হারিয়ে শ্রীলঙ্কা পরিণত হয় ৭ উইকেটে ২২৬ রানের দলে। দিনের খেলা পুরো হলে হয়তো চতুর্থ দিনেই নিভে যেত ক্যান্ডি টেস্টের আয়ু।


এসএম

Print