সম্প্রীতি স্থাপনে খাবার কুটনীতির গুরুত্ব অপরিসীম: ইরানি রাষ্ট্রদূত

স্টাফ রিপোর্টার
টাইম নিউজ বিডি,
০৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০৩:৪৪:১১
#

খাবার শুধু ক্ষুধাই নিবারণ করে না, খাবারের সাথে জড়িত থাকে অনেক দেশের ইতিহাস, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি। কুটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনে খাবারও হতে পারে অনেক গুরুত্বপূর্ণ উপাদান।


বাংলাদেশে নিযুক্ত ইরানি রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ রেযা নাফার এ মন্তব্য করেন।


আজ (শনিবার) সন্ধ্যা ৬ টায় ঢাকায় সপ্তাহব্যাপী ইরানিয়ান ফুড ফেস্টিভালের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এমন মন্তব্য করেন।


রাষ্ট্রদূত বলেন, সুন্দর পরিপাটি খাবার পরিবেশনের মাধ্যমে মানুষের হৃদয় জয় করা যায়, সুসম্পর্ক স্থাপন করা যায়।


তিনি বলেন, ইরানের সুস্বাদু, পুষ্টিকর ও ভেজালমুক্ত খাবার শুধু এশিয়াই নয়, ইউরোপসহ সারা পৃথিবীতে রয়েছে এর কদর।


রাষ্ট্রদূত নাফার বলেন, ইরানের সুদীর্ঘ ইতিহাস ও ঐতিহ্যের সঙ্গে রয়েছে সেখানকার নানা ধরনের খাবারের ঐতিহাসিক যোগসূত্র। এসব ব্যাতিক্রমধর্মী খাবার একদিকে যেমন মানুষকে শান্তি দিবে, তেমনি ইরানের মানুষের সুরুচিবোধকে জানতেও সাহায্য করবে।


ইরান সাংস্কৃতিক কেন্দ্র, ঢাকা ও হোটেল সারিনার যৌথ উদ্যোগে শনিবার (২ ফেব্রুয়ারি) থেকে হোটেল সারিনায় সপ্তাহব্যাপী এই ইরানিয়ান ফুড ফেস্টিভাল শুরু হয়েছে।


বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকবৃন্দ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেন।


ইরানিয়ান ফুড ফেস্টিভাল ২ ফেব্রুয়ারি শুরু হয়ে চলবে ৮ ফব্রেুয়ারি র্পযন্ত প্রতদিনি সন্ধ্যা ৭টা থকেে ১১টা ।


শিষ্ট ইরানি শেফ হোসাইন নাজমির তত্ত্বাবধানে প্রস্তুত করা হচ্ছে অন্যরকম স্বাদের নানা রকম ইরানি খাবার।


ইরান, ইরাক, আফগানিস্তান, তুরস্ক এবং ওমানের কূটনীতকরা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।


কেবি

Print