ধর্ম যার যার উৎসব সবার: প্রধান বিচারপতি

স্টাফ রিপোর্টার
টাইম নিউজ বিডি,
১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ২৩:৩০:৪৯
#

প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন বলেছেন, ধর্ম যার যার উৎসব সবার। ভবিষ্যতে জাঁকজমকপূর্ণভাবে বাণী অর্চনা উৎসব অনুষ্ঠিত হবে।


রোববার সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতি মিলনায়তনে সরস্বতী পূজা উপলক্ষে আয়োজিত এক বাণী অর্চনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন।


সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতি বাণী অর্চনা উদযাপন পরিষদের উদ্যোগে এ পূজার আয়োজন করা হয়।


সকালে ‘বাণী অর্চনা’ অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে বক্তব্য দেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন, অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম, সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি জয়নুল আবেদীন, সম্পাদক মাহবুব উদ্দিন খোকন, উৎসবের আহ্বায়ক যষ্টী সরকার ও সদস্য সচিব মিন্টু কুমার মন্ডল।


প্রধান বিচারপতি সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বলেন, ‘আমিও এটা মনে করি যে, ধর্ম যার যার উৎসব সবার। সুতরাং আজকে আমরা এ উৎসবে যোগ দিতে এসেছি। সুপ্রিম কোর্ট বারে এটা অনেক আগ থেকে পালন হয়ে আসছে এবং আমার তো মনে হয় যে, আমি প্রায় প্রত্যেক বার এসেছি, কোনোবার আমার মিস হয়নি। আমি আশা করি ভবিষ্যতেও আসবো এবং এরকম জাঁকজমকপূর্ণভাবে এ উৎসব অনুষ্ঠিত হবে।’


আইনজীবী ছাড়াও পূজার বাণী অর্চনা অনুষ্ঠানে অংশ নেন সুপ্রিমকোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি ওবায়দুল হাসান, বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম, বিচারপতি গোবিন্দ চন্দ্র ঠাকুর, বিচারপতি ভবানী প্রসাদ সিংহ, বিচারপতি শশাংক শেখর সরকর প্রমুখ।


অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, “আজ সবাই বাণী অর্চনার এই আনন্দে মেতে উঠুক। যে, যে ধর্মই পালন করি না কেন, উৎসবে সংযুক্ত হয়ে সবাই একাকার যাব এমনটাই কামনা করি।”


সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি জয়নুল আবেদীন বলেন, “আমরা মনে করি এই দেশ সকলের। এই সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতিও সকলের। তাই এই দিনটিকে আমরা অত্যন্ত আনন্দের সঙ্গে পালন করে থাকি।”


এর আগে শনিবার (০৯ ফেব্রুয়ারি) রাতে প্রতিমা স্থাপন করা হয়। রোববার সকাল সাড়ে আটটা থেকে পূজা শুরু হয়। পরে অঞ্জলী প্রদান এবং প্রসাদ বিতরণ করা হয়।


এএস

Print