বেকার বাড়ছে বছরে ৮ লাখ: সিপিডি

স্টাফ রিপোর্টার
টাইম নিউজ বিডি,
১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ২২:৩৩:৪১
#

প্রতি বছর ২১ লাখ মানুষ দেশের শ্রম বাজারে প্রবেশ করছে। এর বিপরীতে চাকরি তৈরি হচ্ছে ১৩ লাখ।


আর কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি না হওয়ায় প্রতি বছর আট লাখ নতুন বেকার তৈরি হচ্ছে। দেশে উচ্চ প্রবৃদ্ধি অর্জন হলেও পর্যাপ্ত কর্মসংস্থান তৈরি হচ্ছে না।


গতকাল রবিবার রাজধানীর একটি হোটেলে গবেষণা প্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ (সিপিডি) আয়োজিত অন্তর্ভুক্তিমূলক প্রবৃদ্ধি ও নতুন সরকারের জন্য অগ্রাধিকার শীর্ষক সংলাপে এ তথ্য তুলে ধরা হয়।


সংলাপে সিপিডির প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন প্রতিষ্ঠানটির নির্বাহী পরিচালক ফাহমিদা খাতুন। তিনি বলেন, প্রতি বছর ২১ লাখ মানুষ শ্রমবাজারে প্রবেশ করছে। কিন্তু বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) হিসাবে দেখা গেছে, ২০১৫-১৬ থেকে ২০১৬-১৭ অর্থবছরের মধ্যে মোট ১২ লাখ ৯৬ হাজার মানুষের কাজের ব্যবস্থা হয়েছে।


এ থেকে বলা যায়, বছরে আট লাখ মানুষ কাজের সুযোগ না পেয়ে বেকার থাকছে। বৈষম্যও বাড়ছে ব্যাপকভাবে। ২০১০ সালে দেশের ধনাঢ্য ৫ শতাংশ মানুষ সবচেয়ে দরিদ্র ৫ শতাংশ মানুষের চেয়ে ৩২ গুণ বেশি ধনী ছিল। ২০১৫ সালে এসে এ পার্থক্য ১২১ গুণে পৌঁছেছে।


প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান বলেন, বর্তমান সরকারের আমলে দেশ এগিয়েছে। আগামীতে দেশকে এগিয়ে নিতে সরকারের সময়োপযোগী পরিকল্পনা রয়েছে। এজন্য গবেষক, উদ্যোক্তাসহ সব শ্রেণী-পেশার মানুষের সহযোগিতা প্রয়োজন।


তিনি আরো বলেন, এখনো দেশের মূল সমস্যা দারিদ্র্য। দারিদ্র্য নেকড়ের মতো তাড়া করছে। এজন্য সরকার দারিদ্র্য দূর করার পাশাপাশি মানুষের মৌলিক অধিকার মানসম্মতভাবে নিশ্চিত করার পরিকল্পনা করছে। সরকার বৈষম্য দূর করে ন্যায়বিচার ও সমতা প্রতিষ্ঠা করতে চায়।


বিশেষ অতিথি শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেন, শিক্ষাক্ষেত্রে ‘গেল গেল’ একটা রব উঠেছে। কিন্তু এর মধ্যেও শিক্ষা ও স্বাস্থ্য খাতে যে বিনিয়োগ হয়েছে, তা অতীতের যেকোনো সময়ের চেয়ে বেশি। নারীর ক্ষমতায়ন ও সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী থেকে শুরু করে সবক্ষেত্রে সুষম উন্নয়ন হচ্ছে। বর্তমান সরকার সাম্প্রদায়িকতার সঙ্গে আপস করবে না।


মুক্ত আলোচনায় অংশ নিয়ে সাবেক অর্থমন্ত্রী সাইদুজ্জামান বলেন, উন্ন্নয়নের জন্য ব্যবসায় পরিবেশ উন্ন্নয়ন জরুরি। স্থানীয় ও বিদেশী বিনিয়োগ বাড়ানোর ওপর গুরুত্ব দিতে হবে। পাশাপাশি দুর্নীতি দূর ও সবাইকে জবাবদিহিতার আওতায় আনতে হবে।


গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী সুশাসন নিশ্চিত করা ও প্রশাসনিক বিকেন্দ্রীকরণ করার পরামর্শ দেন। তিনি বলেন, ১৭ কোটি মানুষের দেশকে একমাত্র ঢাকা থেকে নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব নয়।


অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সিপিডির ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক রেহমান সোবহান। সঞ্চালনায় ছিলেন সিপিডির সম্মাননীয় ফেলো অধ্যাপক মোস্তাফিজুর রহমান।


এএস

Print