খেতে পারছেন না খালেদা জিয়া, অত্যন্ত অসুস্থ: সাক্ষাৎ শেষে মির্জা ফখরুল

স্টাফ রিপোর্টার
টাইম নিউজ বিডি,
১৫ এপ্রিল, ২০১৯ ০১:২৮:২২
#

কারাবন্দি সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া এখনও খেতে পারছেন না বলে দাবি করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, “খালেদা জিয়া অত্যন্ত অসুস্থ।”


বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) সাক্ষাৎ শেষে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এইসব কথা বলেন।


আজ (১৪ এপ্রিল) রোববার বিকাল ৪টা ৭মিনিট থেকে ৫টা পর্যন্ত খালেদা জিয়ার কেবিনে মির্জা ফখরুলের সঙ্গে আরও ছিলেন- দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান ও চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান।


খালেদা জিয়া এখনও খেতে পারছেন না দাবি করে মির্জা ফখরুল বলেন, “ম্যাডাম বেশ অসুস্থ, অত্যন্ত অসুস্থ। এখনও তিনি পা বেন্ড (বাঁকানো) করতে পারছেন না। তার বাম হাত আগের মতোই রয়ে গেছে। অর্থাৎ বাম হাতটা কাজ করতে পারছে না।”


প্যারোলে মুক্তি ও সংসদে বিএনপির নির্বাচিত সদস্যদের শপথ নেওয়ার বিষয়ে খালেদা জিয়ার সঙ্গে কোনও আলোচনা হয়েছে কিনা? জানতে চাইলে বিএনপি মহাসচিব বলেন, “এসব বিষয়ে কোনও আলোচনা করিনি। আমরা তার চিকিৎসার ব্যাপারে খোঁজ নিতে আসছিলাম। স্বাস্থ্যের বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।”


মির্জা ফখরুল বলেন, “আমরা অনেকদিন ধরে চেষ্টা করছিলাম, তার সঙ্গে দেখা করার জন্য। আমাদের এর আগে অনুমতি দেওয়া হয়নি।”


খালেদা জিয়া যথেষ্ট অসুস্থ দাবি করে বিএনপি মহাসচিব আরও বলেন, “আগের চেয়ে খুব বেশি ইম্প্রুভ করেছে বলে আমাদের কাছে মনে হয়নি। আমরা বার বার যেটা বলেছি, তার স্পেশালাইজড ট্রিটমেন্ট দরকার। কিন্তু সে ট্রিটমেন্ট এখনও শুরু হয়েছে বলে মনে হয়নি।”


মির্জা ফখরুল বলেন, “আজকেও বলছি, খালেদা জিয়াকে তার পছন্দ মতো হাসপাতাল ও চিকিৎসকদের দিয়ে চিকিৎসা করানো হোক। এটা জরুরি।”


খালেদা জিয়া দেশবাসীকে বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন উল্লেখ করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, “তিনি গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের জন্য বলেছেন। এর জন্য দেশবাসী যেন সচেতন হয় এবং কাজ করে।”


উল্লেখ্য, দুদকের দায়ের করা জিয়া অরফানেজ ও চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় দণ্ডিত বেগম খালেদা জিয়া গত বছরের ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে কারাগারে।


গত ১ এপ্রিল থেকে খালেদা জিয়াকে বিএসএমএমইউ’র কেবিন ব্লকের ৬ তলার ৬২১ নম্বর কক্ষে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। এখানে চিকিৎসা নিতে আসার পর এটিই নেতাদের সঙ্গে তার প্রথম সাক্ষাৎ। 


এমবি   

Print