‘পুলিৎজার’ জিতলেন রয়টার্সের কারাবন্দি ২ সাংবাদিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
টাইম নিউজ বিডি,
১৭ এপ্রিল, ২০১৯ ১৪:০১:১৫
#

রোহিঙ্গা গণহত্যার প্রামাণ্যচিত্র প্রকাশের কৃতিত্ব দেখানোয় মিয়ানমারে কারাবন্দি রয়টার্সের দুই সাংবাদিক পুলিৎজার পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন।


তারা হলেন- ওয়া লোন ও ক্যাও সো ও। ৪৯০ দিন ধরে তারা মিয়ানমারের কারাগারে বন্দি রয়েছেন।


আল জাজিরার খবরে বলা হয়েছে , দুই সাংবাদিক নিরাপত্তা বাহিনী ও বৌদ্ধ গ্রামবাসীদের হাতে রোহিঙ্গা মুসলিমদের গণহত্যার প্রামাণ্যচিত্র প্রকাশ করেন। তাদের ওই প্রতিবেদনে বিশ্বজুড়ে আলোড়ন সৃষ্টি হয়। নৃশংসভাবে বেসামরিক রোহিঙ্গাদের হত্যার প্রতিবাদে সোচ্চার হয় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়। নিজেদের বিরুদ্ধে অকাট্য প্রমাণ দুনিয়াজুড়ে ছড়িয়ে পড়ায় বিপাকে পড়ে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী। পরে মিয়ানমারের একটি আদালত রাষ্ট্রীয় গোপনীয়তা লঙ্ঘনের অভিযোগে তাদের সাত বছরের কারাদণ্ড ঘোষণা করে।


মিয়ানমারে শাস্তির মুখে পড়লেও বিশ্বজুড়ে প্রশংসিত হতে থাকেন দুই সাংবাদিক। তার ধারাবাহিকতায় এবার মর্যাদাপূর্ণ পুলিৎজার পুরস্কার লাভ করলেন তারা। এই পুরস্কারকে সাংবাদিকতার নোবেল বলে মনে করা হয়।


সোমবার ইন্টারন্যাশনাল রিপোর্টিং ক্যাটাগরিতে বিজয়ী হিসেবে তাদের নাম ঘোষণা করা হয়। রয়টার্সের প্রধান সম্পাদক স্টিফেন কে অ্যাডলার বলেন, ওয়া লোন, ক্যাও সো ও এবং তাদের সহকর্মীরা তাদের সাহসী প্রতিবেদনের স্বীকৃতি পেয়েছেন। এতে আমি রোমাঞ্চিত। একই সঙ্গে আমাদের সাহসী প্রতিবেদকরা এখনো কারাবন্দি থাকায় আমি ব্যথিত।


রয়টার্সের প্রধান নির্বাহী জিম স্মিথ বলেন, ওয়া লোন ও ক্যাও সো ও মুক্ত না হওয়া পর্যন্ত আমরা এই অর্জন উদ্‌যাপন করতে পারবো না।


প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালে তাদেরকে গ্রেপ্তার করে মিয়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনী। তারা দুজনই মিয়ানমারের নাগরিক। রাখাইনে বার্মিজ সেনাদের ক্লিয়ারেন্স অপারেশনের সময় তারা একটি গ্রামে গণকবর খুঁজে পান। পরে ওই হত্যাকাণ্ডের বিভিন্ন তথ্য প্রমাণের ভিত্তিতে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেন তারা।


জেড

Print