নতুন বোতলে 'পুষ্টি'র মেয়াদউত্তীর্ণ তেল, ৭৫ লাখ টাকা জরিমানা

টাইম ডেস্ক
টাইম নিউজ বিডি,
০৬ মে, ২০১৯ ১৩:৩৮:২৯
#

বাজারে বেশ চাহিদা রয়েছে টিকে গ্রুপের পুষ্টি সয়াবিন তেলের। তবে নামে পুষ্টি হলেও কাজে এর যেন ছিটেফোঁটাও নেই। বিএসটিআই এর সহযোগিতায় র‌্যাবের আকস্মিক অভিযানে হাতেনাতে সে রকমই প্রমাণ মিলেছে পুষ্টির তেল প্রস্তুতের কারখানায়।


রোববার নারায়ণগঞ্জের সিদ্দিরগঞ্জে পুষ্টি সয়াবিন তেলের কারখানা সুপার অয়েল রিফাইনারি লিমিটেডে এ অভিযান চালানো হয় বলে জানান র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম। বাজারের অবিক্রিত মেয়াদোত্তীর্ণ তেল ফেরত এনে পাইপলাইনে ঢুকিয়ে নতুন করে বোতলজাত করা ও কোয়ালিটি কন্ট্রোল ল্যাবের (কিউসি ল্যাব) ৮০ ভাগ রাসায়নিক পদার্থের মেয়াদোত্তীর্ণ পাওয়ায় প্রতিষ্ঠানটিকে ৭৫ লাখ টাকা জরিমানা করেছে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত।


অভিযানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন র‌্যাব সদর দফতরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিএসটিআইয়ের ফিল্ড অফিসার মো. খাইরুল ইসলাম ও র‌্যাব-১০ এর কর্মকর্তারা।


অভিযান শেষে ভ্রাম্যমাণ আদালতের পরিচালক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম বলেন, ‘গত বৃহস্পতিবার মতিঝিলে শিল্প মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, আসন্ন রমজানকে লক্ষ্য রেখে বাজার থেকে নমুনা সংগ্রহের পর পরীক্ষা করে দেশের ১৮টি প্রতিষ্ঠানের ৫২ ব্র্যান্ডের ১৮টি নিম্নমানের পণ্য চিহ্নিত করেছে বিএসটিআই। এরমধ্যে উঠে আসে পুষ্টি ব্র্যান্ডের সরিষার তেল নিম্নমানের। এরপরই বিএসটিআই ও র‌্যাব মিলে পুষ্টি তেল কারখানায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ এলাকার কাঁচপুর ব্রিজসংলগ্ন সুপার অয়েল রিফাইনারি লিমিটেডে (পুষ্টি সয়াবিন তেল প্রস্তুতকারক) অভিযানে গিয়ে দেখা যায়, বাজারের অবিক্রিত মেয়াদোত্তীর্ণ তেল ফেরত এনে পাইপলাইনে ঢুকিয়ে নতুন করে বোতলজাত করছে। যা সত্যিই অবিশ্বাস্য এবং দুঃখজনক।’


তিনি বলেন, ‘এখানেই শেষ নয়, প্রতিষ্ঠানটির তেল জাতীয় পণ্যের গুণগত মান পরীক্ষাগারের ৮০ ভাগ রাসায়নিক পদার্থের মেয়াদোত্তীর্ণ হয়েছে কয়েক বছর আগেই। এসব কারণে প্রতিষ্ঠানটিকে ৭৫ লাখ টাকা জরিমানা করে ভ্রাম্যমাণ আদালত।’


সারওয়ার আলম আরও বলেন, ‘আসন্ন রমজান উপলক্ষে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণে কোনো ছাড় দেয়া হবে না। যত বড় প্রতিষ্ঠানই হোক না কেন, ভোক্তা অধিকার খর্ব করা হলে গুণগত মান রক্ষা না করা পণ্য উৎপাদন করলে, মেয়াদোত্তীর্ণ খাদ্যপণ্য সরবরাহ, বিক্রি ও মজুদ করলে প্রচলিত আইন অনুযায়ী আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।’


এ ব্যাপারে বিএসটিআইয়ের ফিল্ড অফিসার মো. খাইরুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা বাজার মনিটরিং করছি। গুণগত মান যাদের খারাপ রয়েছে তাদের কারখানায় আকস্মিক অভিযান চালাব। তথ্যপ্রমাণের ভিত্তিতে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’ সূত্র: জাগো নিউজ


জেড

Print