সেই শিশুকে ফেলে যাওয়ার চিত্র ধরা পড়ল সিসিটিভি ক্যামেরায়

স্টাফ রিপোর্টার
টাইম নিউজ বিডি,
১৬ মে, ২০১৯ ১৪:৪২:০৯
#

ঢাকা শিশু হাসপাতালের ৩০১ নম্বর কেবিনে যেন আকাশ থেকে এক ফালি চাঁদ নেমে এসেছে।


হাসপাতালের টয়লেটে পাঁচ থেকে সাতদিন বয়সী কন্যা শিশুটিকে ফেলে গিয়েছিলেন দুই নারী।


সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ থেকে এ বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া গেছে। এদিকে শিশুটিকে দত্তক নিতে হাসপাতালে ভিড় করছেন আগ্রহীরা। অনেকেই আবার চাইছেন শিশুটির দায়িত্ব নিতে। তবে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন আদালত।


ঢাকা শিশু হাসপাতালে ফেলে যাওয়া মেয়ে শিশুটির ব্যাপারে এখনো কোনো ধারণা পাওয়া যায়নি। শিশুটি কি চুরি যাওয়া কোনো বাচ্চা, নাকি ফেলে যাওয়া হয়েছে- কোনো কিছুই বোঝা যাচ্ছে না। মঙ্গলবার দুপুরে কে বা কারা ফুটফুটে এই শিশুটিকে হাসপাতালে ফেলে যায়।


সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজে দেখা যায়, মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে হন্তদন্ত হয়ে ঢাকা শিশু হাসপাতালে ঢুকছেন দুই নারী। এক নারীর হাতে দেখা যায় কাপড়ের পুটুলি সদৃশ কিছু। তিনি শৌচাগারে ঢুকে দ্রুত বেড়িয়ে যান।


ধারণা করা হচ্ছে এই দুজনই ফেলে যায় শিশুটিকে। ঢাকা শিশু হাসপাতাল উপ-পরিচালক ডা. আবু তায়েব বলেন, দুজনকে আমরা দোষী বলে ধারণা করেছি।


ডা. মো. আবু তায়েব বলেন, ‘আমরা গতকাল যেটা দেখছি, দুইটা মহিলা একসঙ্গে আসছিল। একজন বোরকা পরা, তারা দুজন খুব তাড়াতাড়ি ভেতরে ঢুকল, পরে স্বাভাবিকভাবে আরামসে বের হয়ে আসল। হাতে যেটা দেখার মতো ছিল, সেটা পরে বের হওয়ার সময় আর ছিল না।


হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বলেছ, শিশুটি পুরোপুরি সুস্থ। আপাতত এই মায়ের কোলে নিশ্চিন্তেই আছে সে। পৃথিবীর আলো দেখার সঙ্গে সঙ্গে নির্মম বাস্তবতার সাক্ষী হতে হয়েছে। এরই মধ্যে ওকে সন্তান হিসেবে পেতে হাসপাতালে ভিড় করছেন অনেকে।


তবে বিষয়টি আদালতের মাধ্যমেই নিষ্পত্তির কথা জানিয়েছেন ঢাকা শিশু হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক অধ্যাপক ফরিদ আহমেদ।


তিনি বলেন, এ বাচ্চা কাকে দিবে, তা আদালত ঠিক করে দেবেন। কেউ যদি বলেন, এটার তার বাচ্চা তাও কোর্টে গিয়ে প্রমাণ দিয়ে নিতে হবে। এদিকে বাচ্চাটি কে, কেন এভাবে ফেলে গেল তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।


এএস

Print