‘ফারাক্কা তৈরির অনুমতি দেয় শেখ মুজিবুর রহমান’

স্টাফ রিপোর্টার
টাইম নিউজ বিডি,
১৬ মে, ২০১৯ ২১:৪৪:৪৩
#

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেছেন, পরীক্ষামূলক ভাবে ফারাক্কা তৈরি করা হয়। কিন্তু এখন এ ফারাক্কা বাংলাদেশের জন্য একটা মরন ফাদ হিসেবে দাঁড়িয়েছে। ফারাক্কা তৈরির জন্য অনুমতি চাওয়া হলে শেখ মুজিবুর রহমান অনুমতি দেয়। কিন্তু সে পরীক্ষা এখনো শেষ হয় নাই।


বৃহস্পতিবার (১৬ মে) জাতীয় প্রেসক্লাবে জাতীয়তাবাদী কৃষক দলের আয়োজনে ঐতিহাসিক ফারাক্কা দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।


নজরুল ইসলাম খান বলেন, মাওলানা ভাসানী এমন একজন ব্যক্তি ছিলেন, যিনি প্রয়োজনীয় কথা বলতেন। দেশের জন্য যা করা দরকার তিনি তাই করতেন। তিনি আরও বলেন, মাওলানা ভাসানী প্রথমে আওয়ামী মুসলিম লীগ তৈরি করে তার পর বর্তমান আওয়ামী লীগ তৈরি করেন। কিন্তু আজ সময় দলে মাওলানা ভাসানীর কোন কথা নাই।


নজরুল ইসলাম বলেন, যারা হক কথা পছন্দ করেন না তারাই হক কথা যারা বলে তাদের কথা বন্ধ করে দেয়। বর্তমানে যারা হক কথা বলে তাদেরকে গায়েবি মামলা দিয়ে দেয়। যার নামে মামলা দেওয়া হয় সে নিজেও জানেন না এ মামলা কোথা থেকে এসেছ।


তিনি আরও বলেন, ভারতে যখন বন্যা হয় তখন তারা আমাদের দেশে পানি ছেড়ে দেয় আর সে পানিতে বাংলাদেশ তলিয়ে যায়। ভারতের সাথে পাকিস্তানের এতো দ্বন্দ্ব তার পরেও সিন্দু নদীতে পানি সুসমবন্টন হয়ে থাকে কিন্তু আমাদের বেলায় অন্য।


বিএনপি এ নেতা বলেন, বাংলাদেশে বড় লোক যত দ্রুত বড় হচ্ছে আর গরিব যত দ্রুত গরিব হচ্ছে পৃথিবীর কোন দেশে এমন ইতিহাস নেই। আজ কৃষক তার পাকা ধান ক্ষেতে আগুন দিচ্ছে। শ্রমিকরা তাদের বকেয়া বেতনের জন্য আন্দোলন করছে। আর এ বৈষম্যের পরিবর্তন করতে হলে জনগনকে এগিয়ে আসতে হবে।


নজরুল ইসলাম বলেন, যে দেশ গনতন্ত্র মুক্তির জন্য স্বাধীন হয়েছে সে দেশে আজ গনতন্ত্র নেই। গনতন্ত্র ২৯ তারিখ রাতেই শেষ হয়ে গেছে। তিনি আরও বলেন, যিনি বার বার গনতন্ত্রকে মুক্তি দিয়েছে সে সেনাপতি বেগম খালেদা জিয়াকে জেল থেকে মুক্তি করতে হবে। তবেই দেশে আবারও গনতন্ত্র মুক্তি পাবে।


বিএনপি এ নেতা আরও বলেন, রাজনৈতিক কারনে সম্পন্ন অন্যায় ভাবে, খুবই অমানবিক ভাবে খালেদা জিয়াকে জেলে আটক করে রেখেছে। আদালতে কোন আইনজীবী প্রমাণ করতে পারে নাই যে বেগম জিয়া ধোষী।


বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য রাজপথে একসাথে লড়াই করার জন্য সকলকে আহ্বান জানান নজরুল ইসলাম খান।


বিএনপির ভাইরাস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেন, এ সরকার জনগণের জন্য নয়, ডাকাতি করে, জোর করে এ সরকার ক্ষমতায় এসেছে। বাংলাদেশকে বিশ্বের ছোট করেছে এ সরকার।


তিনি বলেন, মাওলানা ভাসানী অনেক প্রধানমন্ত্রী, রাষ্ট্রপতি জন্ম দিয়েছেন। কিন্তু স্বৈরাচারের কাজ হচ্ছে সত্যকে মিথ্যা এবং মিথ্যাকে সত্যে রুপদেওয়া। আর এই স্বৈরাচারকে ধ্বংস করতে হলে সকলকে একত্রিত হতে হবে।


মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেন, ২৯ তারিখ রাতের নির্বাচনের মাধ্যমে যে সরকার ক্ষমতায় এসেছে তা কখনো সরকার হতে পারেনা। তা হচ্ছে শাসকগোষ্ঠী। তিনি আরও বলেন, রাজনীতি এখন কোনঠাসায় আছে বর্তমান অবস্থা থেকে বের হতে হলে সকলকে অতিতের সকল ভুল ভুলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে এগিয়ে আসতে হবে। বেগম জিয়ার মুক্তি হচ্ছে গনতন্ত্রের মুক্তি।


বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদুর সভাপতিত্বে এবং কৃষিবিদ হাসান জাফির চৌধুরীর পরিচালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- নজরুল ইসলাম খান, সেলিনা রহমান, সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, নাজমুল হক নান্নুসহ প্রমুখ।


এসএম/এমবি  

Print