উত্তর কোরিয়ার নেতার সৎ ভাই সিআইএ’র এজেন্ট

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
টাইম নিউজ বিডি,
১১ জুন, ২০১৯ ১৬:২২:১৪
#

উত্তর কোরিয়ার শীর্ষ নেতা কিম জং উনের প্রয়াত সৎভাই কিম জং ন্যাম মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ’র এজেন্ট ছিলেন বলে জানিয়েছে একটি মার্কিন দৈনিক।


মালয়েশিয়ার রাজধানী কুয়ালালামপুর বিমানবন্দরে ২০১৭ সালে মুখমণ্ডলে ‘ভিএক্স নার্ভ এজেন্ট’ প্রয়োগ করে কিম জং ন্যামকে হত্যা করা হয়। খবর ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের।


সংশ্লিষ্ট একটি সূত্রের বরাত দিয়ে ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল সোমবার জানিয়েছে, মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থার সঙ্গে কিম জং-ন্যামের এক ধরনের ‘যোগাযোগ’ ছিল।


তবে উত্তর কোরিয়ার নেতার সৎভাই’র সঙ্গে যোগাযোগ রেখে সিআইএ আমেরিকার কোনো উপকার করতে পেরেছে কিনা তা নিয়ে মার্কিন দৈনিকটি সংশয় প্রকাশ করেছে। এটি বলেছে, উত্তর কোরিয়ার রাজধানী পিয়ংইয়ংয়ে কোনো ধরনের ক্ষমতা ছিল না প্রয়াত ন্যামের। কাজেই তার পক্ষে উত্তর কোরিয়ার কোনো গোপন তথ্য সিআইএ’র হাতে তুলে দেয়া সম্ভব ছিল না।



কিম জং-ন্যামের হত্যাকাণ্ডের তদন্তকারী মালয়েশিয়ার একজন পুলিশ কর্মকর্তা গত বছর আদালতে জানান, উত্তর কোরিয়ার নেতার সৎভাই নিহত হওয়ার চারদিন আগে ২০১৭ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি কুয়ালালামপুরের একটি হোটেলে একজন মার্কিন নাগরিকের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। ওই মার্কিন নাগরিক কোনো গোয়েন্দা কর্মকর্তা হয়ে থাকবেন বলে ওই কর্মকর্তা জানান।


২০১৭ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি কিম জং-ন্যামকে কুয়ালালামপুর আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে রাসায়নিক প্রয়োগে হত্যা করা হয় বলে জানায় মালয়েশিয়ার পুলিশ। পুলিশ জানায়, ন্যামকে হত্যায় ‘ভিএক্স নার্ভ এজেন্ট’ নামে এক ধরনের রাসায়নিক ব্যবহার করা হয়।


মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুর আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ম্যাকাওগামী একটি বিমানে চড়ার প্রস্তুতিকালে ন্যামের ওপর হামলা চালায় দুই নারী। এতে নিহত হন তিনি।


দুই হামলাকারী কিমের মুখে এক ধরনের তরল মেখে পালিয়ে যায়। হামলার পর বিমানবন্দরে কর্মরতদের সাহায্য পেয়েছিলেন ন্যাম। কিন্তু হাসপাতালে যাওয়ার আগেই তার মৃত্যু হয়।


এএস

Print