ষড়যন্ত্রের শিকার মোহাম্মদ শেহজাদ

স্পোর্টস ডেস্ক
টাইম নিউজ বিডি,
১১ জুন, ২০১৯ ১৬:৪৭:০০
#

আফগান ক্রিকেট বোর্ডের (এসিবি) বিরুদ্ধে ফের কামান দাগালেন মোহাম্মদ শেহজাদ। বিস্ফোরক মন্তব্য করে কাঁপিয়ে দিলেন ক্রিকেট দুনিয়াকে। আফগান এ উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যানের অভিযোগ, ষড়যন্ত্র করে তাকে বিশ্বকাপ থেকে বাদ দিয়েছে তার দেশের ক্রিকেট বোর্ড। যদিও তিনি এ মেগা ইভেন্টে খেলার জন্য যথেষ্ট ফিট।


পাকিস্তানের বিপক্ষে বিশ্বকাপ ওয়ার্ম-আপ ম্যাচে হাঁটুতে চোট পান শাহজাদ। তবে তিনি সেই ইনজুরি কাটিয়ে উঠেন বিশ্বকাপ মাঠে গড়ানোর আগেই। ১ ও ৪ জুন যথাক্রমে খেলেন অস্ট্রেলিয়া ও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে।


তারপরও ৮ জুন নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচের আগে আইসিসি ঘোষণা করে, হাঁটুর ইনজুরির কারণে বিশ্বকাপের বাকি অংশে খেলতে পারবেন না শাহজাদ। তার জায়গায় দলে ডাক পান টিনেজার ইকরাম আলী খিল।


এনিয়ে নিজের দেশের ক্রিকেট বোর্ডকে কাঠগড়ায় দাঁড় করলেন শাহজাদ, ‘আমি এখনো জানি না কেন আমাকে আনফিট ঘোষণা করা হয়েছে। বাস্তবে খেলার জন্য আমি যথেষ্ট ফিট। বোর্ডের (এসিবি) কিছু লোক আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করেছে। কেবল ম্যানেজার, চিকিৎসক আর অধিনায়ক জানতেন যে আমি বাদ পড়তে হতে যাচ্ছি। এমনকি কোচ (ফিল সাইমন্স) জেনেছেন অনেক পরে। এটা হৃদয় বিদারক।’


মারকুটে এ ওপেনার আরো জানান, ‘নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচের আগে অন্য সবার মতো অনুশীলন করেছিলাম। ফোন চেক করার পরই কেবল জানতে পারি হাঁটুর ইনজুরির কারণে আমি বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গেছি। বাসের কোনো খেলোয়াড়ই এটা জানতো না। খবর শুনে আমার মতো তারাও হতবাক হয়ে পড়ে।’


শাহজাদের অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে এসিবি-র সিইও আসাদুল্লাহ খান জানান, ‘শাহজাদ যা বলছেন তা পুরোপুরি মিথ্যা। সঠিক মেডিকেল রিপোর্ট আইসিসি-র কাছে পাঠানোর পরই তার বদলি খেলোয়াড়ের নাম ঘোষণা আসে। একজন আনফিট খেলোয়াড়কে তো দল মাঠে নামাতে পারে না। আমার মনে হয়, বিশ্বকাপ থেকে বাদ পড়ে সে হতাশ হয়ে পড়েছে। ফিটনেস নিয়ে তো দল কোনো ছাড় দিতে পারে না।’


এসএম

Print