জমি নিয়ে বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ৮

শরীয়তপুর প্রতিনিধি
টাইম নিউজ বিডি,
১৬ জুন, ২০১৯ ১৬:০৫:২৯
#

শরীয়তপুর সদর উপজেলার ডোমসার ইউনিয়নের পশ্চিম কোয়ারপুর গ্রামে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় ৮ জন আহত হয়েছেন।


আহতদের শরীয়তপুর সদর হাসপাতাল ও ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।


এ ঘটনায় রবিবার পালং মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।


আহতরা হলেন, পশ্চিম কোয়ারপুর গ্রামের কাশেম মাদবর (৭০), তার স্ত্রী রাজিয়া বেগম (৫০), ছেলে ইয়াকুব মাদবর (২৯), মেয়ে রুজিনা (২৮), দবির মাদবর (৭০), দেলোয়ার মাদবর (৪০), সবুজ মাদবর (২৮) ।


পুলিশ-এলাকাবাসী ও মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ডোমসার ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের পশ্চিম কোয়ারপুর গ্রামের নুর মোহাম্মদ কাজীর সঙ্গে কাশেম মাদবরের দীর্ঘদিন ধরে জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছে। কোয়ারপুর মৌজার ১৯ শতাংশ জমি নিয়ে ওই বিরোধ চলছিল। জমি নিয়ে একাধিক মামলাও চলছে।


সেই জমিতে গত বুধবার বিকেলে টিনের বেড়া দেন কাশেম মাদবররা। তখন নুর মোহাম্মদ ও কাশেমের সাথে বাকবিতণ্ড হয়। পরে নুর মোহাম্মদ কাজী ক্ষিপ্ত হয়ে তার দল নিয়ে দেশীয় অস্ত্রসস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ওইদিন রাতে কাশেম মাদবর, সামচেল মাদবর ও মজিবর মাদবরের বাড়িতে প্রথমে ককটেল ফাটায় ও পরে হামলা চালায়। এতে ৮ জন আহত হন।


আহতদের মধ্যে কাশেম মাদবর ও দেলোয়ার মাদবরের অবস্থার অবনতি হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান।


শরীয়তপুর সদরের পালং মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আসলাম উদ্দিন বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ নিয়ে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনি। আহতদের উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করি। এ ঘটনায় আহত কাশেম মাদবরের ছেলে ইয়াকুব মাদবর বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন।


এবিসিদ্দিক

Print