গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জ, শুনানি মঙ্গলবার

স্টাফ রিপোর্টার
টাইম নিউজ বিডি,
০৪ জুলাই, ২০১৯ ১৮:৩১:১২
#

গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি সিন্ধান্তের বিরুদ্ধে কনজ্যুমার এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) সম্পূরক আবেদনের শুনানির জন্য আগামী (৯ জুলাই) মঙ্গলবার দিন ঠিক করেছেন হাইকোর্ট।   


পেট্রোবাংলার আইনজীবীর আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আজ (০৪ জুলাই) বৃহস্পতিবার হাইকোর্টের বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এই তারিখ ঠিক করে দেন।


আদালতে সম্পূরক আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন- ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন- ব্যারিস্টার এবিএম আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার। পেট্রোবাংলার পক্ষে ছিলেন- ব্যারিস্টার আশরাফ।


গত ০১ জুলাই থেকে গ্যাসের দাম বাড়ানো হয়। এক চুলার দাম ৭৫০ থেকে বেড়ে হয়েছে ৯২৫ টাকা। দুই চুলা ৮০০ থেকে হয়েছে ৯৭৫ টাকা। এছাড়া গৃহস্থালি কাজে মিটার ভিত্তিক গ্রাহকদের জন্য দাম বেড়েছে ঘনমিটার প্রতি ১২ টাকা ৬০ পয়সা।


গ্যাসের দাম বাড়ানোর পরে তা স্থগিত চেয়ে হাইকোর্টে সম্পূরক আবেদন করে কনজ্যুমার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব। ক্যাবের পক্ষ থেকে আগের রিটের সঙ্গে সম্পূরক আবেদন করেন ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া।


ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া বলেন, প্রথমবার গ্যাসের দাম বৃদ্ধির আদেশের বিরুদ্ধে রিট করলে হাইকোর্ট রুল জারি করেন। ওই রুল বিচারাধীন থাকাবস্থায় আবারও গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির প্রস্তাব করে গত ১১ থেকে ১৪ মার্চ পর্যন্ত গণশুনানি গ্রহণ করা বেআইনি।


আবেদনে বলা হয়, ২০১০ সালের আইনে গ্যাসের বিতরণ ও সঞ্চালনসংক্রান্ত প্রবিধান মালায় গ্যাসের দাম বৃদ্ধির ক্ষেত্রে কতগুলো সুনির্দিষ্ট প্রক্রিয়া অনুসরণের কথা বলা আছে। কিন্তু এসব প্রক্রিয়া অনুসরণ না করেই অযৌক্তিক ভাবে গ্যাসের দাম বাড়িয়েছে পেট্রোবাংলা ও বিইআরসি। এর আগে, গত ২৭ ফেব্রুয়ারি গ্যাসের দাম বৃদ্ধির প্রক্রিয়া স্থগিত চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করে ক্যাব।


ক্যাবের আবেদনে বলা হয়, বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন(বিইআরসি) গত বছরের ১৬ইঅক্টোবর গ্যাসের সঞ্চালন ও বিতরণ ফি বৃদ্ধির আদেশ দিয়েছিল। এ আদেশের বিরুদ্ধে রিট করলে হাইকোর্ট রুল জারি করেন। ওই রুল বিচারাধীন থাকা অবস্থায় আবারও গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির প্রস্তাব করে গত ১১ ই মার্চ থেকে ১৪ ই মার্চ পর্যন্ত গণশুনানি গ্রহণ বেআইনি।


এমবি 

Print