মেয়াদোত্তীর্ণ আটা-ময়দার মেয়াদ বাড়ানোর দায়ে ফ্রেশকে জরিমানা

টাইম ডেস্ক
টাইম নিউজ বিডি,
০৫ জুলাই, ২০১৯ ১৩:৫৮:৫৬
#

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলায় ফ্রেশের একাধিক প্যাকেটজাত মেয়াদোত্তীর্ণ পণ্যের মেয়াদ বাড়িয়ে সেগুলো আবার বাজারজাতের চেষ্টা করেছেন বিক্রয় প্রতিনিধি (এসআর)। এমন জালিয়াতির ঘটনা ধরা পড়ে পৌর শহরের উত্তরবাজারে ফ্রেশ পণ্যের ডিলার সাইফুদ্দিন অ্যান্ড ব্রাদার্সে।


বৃহস্পতিবার সকালে ডিলারের গুদামে বসে মেয়াদোত্তীর্ণ ফ্রেশ আটা, ময়দার প্যাকেটে মেয়াদ বাড়ানোর জন্য সিল মারতে থাকেন এসআর শরীফ উদ্দিন। এ সময় স্থানীয় ব্যবসায়ী সোয়েব আহমদ ফ্রেশের এসআর শরীফ উদ্দিনকে সিল মারা অবস্থায় ধরে ফেলেন।


খবর পেয়ে কুলাউড়ার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাদিউর রহিম জাদিদ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে মেয়াদোত্তীর্ণ ফ্রেশের ওসব পণ্য জব্দ করেন। সেই সঙ্গে প্রতিষ্ঠানের ডিলার ও বিক্রয় প্রতিনিধিকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।


জানা যায়, অধিক মুনাফার লোভে দীর্ঘদিন ধরে মেয়াদোত্তীর্ণ পণ্য নতুন করে মেয়াদ বাড়িয়ে বাজারজাত করে আসছিল ফ্রেশ পণ্যের ডিলার সাইফুদ্দিন অ্যান্ড ব্রাদার্সের এসআর শরীফ উদ্দিন।


বৃহস্পতিবার সকালে পৌর শহরের সাইফুদ্দিনের গুদামে এসআর শরীফ উদ্দিন আটা-ময়দাসহ ফ্রেশের একাধিক মেয়াদোত্তীর্ণ পণ্যের তারিখ তুলে নতুন মেয়াদ বসানোর কাজ করছিলেন। এ সময় স্থানীয় ব্যবসায়ী সোয়েব আহমদ মেয়াদোত্তীর্ণ পণ্যে নতুন তারিখ বসানোর ব্যাপারে এসআর শরীফের কাছে জানতে চান। শরীফ কোনো উত্তর না দিয়ে সিল ও কালি নিয়ে সটকে পড়েন।


বিষয়টি জানাজানি হলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাদিউর রহিম জাদিদ কুলাউড়া থানা পুলিশের একটি দল নিয়ে বিকেল ৩টার দিকে সাইফুদ্দিন অ্যান্ড ব্রাদার্সে গিয়ে মেয়াদোত্তীর্ণ প্রায় ছয় মণ আটা-ময়দা জব্দ করে নষ্ট করে দেন।


মেয়াদোত্তীর্ণ পণ্যে নতুন তারিখ বসানোর ব্যাপারে প্রতিষ্ঠানের মালিকের কাছে জানতে চাইলে বিষয়টি এড়িয়ে যান সাইফুদ্দিন। তিনি বলেন, এ ব্যাপারে আমি কিছুই জানি না। মার্কেটিংয়ের দায়িত্বে যে আছেন বিষয়টি তিনি জানেন।


পরে মার্কেটিংয়ের দায়িত্বে থাকা এসআর শরীফ উদ্দিনকে জিজ্ঞেস করা হলে মেয়াদোত্তীর্ণ পণ্যে নতুন তারিখ বসানোর কথা স্বীকার করেন।


এ অবস্থায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাদিউর রহিম জাদিদ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ভোক্তা অধিকার আইন ২০০৯-এর ধারায় ফ্রেশ পণ্যের ডিলার সাইফুদ্দিন ও এসআর শরীফ উদ্দিনকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।


একই সঙ্গে এসআর শরীফ উদ্দিনকে আগামী রোববারের মধ্যে ফ্রেশ পণ্যের মার্কেটিংয়ের দায়িত্বে থাকা এরিয়া ম্যানেজার ও বিভাগীয় ম্যানেজারকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের কার্যালয়ে নিয়ে আসার নির্দেশ দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। সেই সঙ্গে ফ্রেশ পণ্য কুলাউড়ায় বাজারজাতকরণে এমন জালিয়াতি করবে না মর্মে অঙ্গীকারনামা দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়। না হয় কুলাউড়ায় এসব পণ্য বাজারজাত বন্ধের জন্য উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভায় সিদ্ধান্ত নিয়ে ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির কাছে নির্দেশ দেয়া হবে বলে জানান নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।


নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাদিউর রহিম জাদিদ বলেন, আগামী রোববারের মধ্যে ফ্রেশ পণ্যের মার্কেটিংয়ের দায়িত্বে থাকা ম্যানেজারদের হাজির হয়ে এসব পণ্য বাজারজাতে প্রতারণা করা হবে না মর্মে অঙ্গীকারনামা দেয়ার নির্দেশ দিয়েছি।নির্দেশ অমান্য করলে উপজেলা পরিষদের আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভায় সিদ্ধান্ত নিয়ে ফ্রেশ পণ্য বাজারজাত বন্ধ ও বর্জনের জন্য ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতিকে জানানো হবে। এরকম জালিয়াতি বন্ধে এখন থেকে নিয়মিত অভিযান চলবে।


জেড

Print