ওসি মোয়াজ্জেমের জামিন আবেদন খারিজ

স্টাফ রিপোর্টার
টাইম নিউজ বিডি,
০৯ জুলাই, ২০১৯ ২২:৪৮:১১
#

বহুল আলোচিত মাদরাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি হত্যাকাণ্ডে সেই সোনাগাজী থানার সাবেক ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনের জামিন আবেদন উত্থাপিত হয়নি মর্মে আদালত এটি খারিজ করে দিয়েছে।


মঙ্গলবার (০৯ জুলাই) হাইকোর্টের বিচারপতি মো. মঈনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি খিজির হায়াতের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এই আদেশ দেয়।


এর আগে গত সোমবার (০১ জুলাই) হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট বেঞ্চে উপস্থাপন করার পরের দিন ২ জুলাই জামিন শুনানির অনুমতি দিয়ে এ বিষয়ে শুনানির জন্য রোববার (০৭ জুলাই) দিন ঠিক করেন। রোববার জামিনের শুনানি নট টুডে (আজ নয়) বলে মঙ্গলবার (০৯ জুলাই) দিন ঠিক করা হয়।


সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল গাজী মামুনুর রশিদ জানান, গত সোমবার (০১ জুলাই) ওসি মোয়াজ্জেমের জামিন আবেদন নিয়ে তার আইনজীবীরা আদালতে এসেছিলেন। রাষ্ট্রপক্ষের আপত্তির কারণে আদালত জামিন আবেদনের অনুমতি দেননি। তবে পরদিন মঙ্গলবার (০২ জুলাই) জামিনের বিষয়ে করা আবেদনের ওপর শুনানির জন্য গ্রহণ করেন আদালত।


এর আগে গত ১৭ জুন ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলায় গ্রেফতার ফেনীর সোনাগাজী থানার সাবেক ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনের জামিন আবেদন নাকচ (খারিজ) করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত।


গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির ২০ দিনের মাথায় গত ১৬ জুন মোয়াজ্জেম হোসেনকে হাইকোর্ট এলাকা থেকে গ্রেফতার করে শাহবাগ থানা পুলিশ।


উল্লেখ্য, গত ৬ এপ্রিল সকালে নুসরাত জাহান রাফি আলিম পরীক্ষা দিতে সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদরাসায় যান। এ সময় একটি ভবনের চার তলায় ডেকে নিয়ে মুখোশ পরা চার-পাঁচজন তাকে অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলার বিরুদ্ধে মামলা ও অভিযোগ তুলে নিতে চাপ দেন। নুসরাত অস্বীকৃতি জানালে তারা তার গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন দিয়ে পালিয়ে যায়। গত ১০ এপ্রিল ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় নুসরাতের মৃত্যু হয়।


এর দিন দশেক আগে মাদরাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলার বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগ জানাতে সোনাগাজী থানায় যান নুসরাত।


থানার তৎকালীন ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন সে সময় নুসরাতকে আপত্তিকর প্রশ্ন করে বিব্রত করেন এবং তা ভিডিও করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেন। ওই ঘটনায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হলে আদালতের নির্দেশে সেটি তদন্ত করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।


পিবিআই গত ২৭ মে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দিলে ওই দিনই গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয়। পরোয়ানার জারির পর থেকে পলাতক রয়েছেন আলোচিত ওই পুলিশ কর্মকর্তা।


এমবি

Print