রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শন করলেন জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব 

কক্সবাজার করেসপন্ডেন্ট
টাইম নিউজ বিডি,
১১ জুলাই, ২০১৯ ১৩:৫৯:৪৭
#

রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শন করেছেন জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব ও গ্লোবাল কমিশন অন অ্যাডাপ্টেশনের সভাপতি বান কি-মুন এবং মার্শাল দ্বীপপুঞ্জের প্রেসিডেন্ট ড. হিলদা সি হেইন।


বৈরী আবহাওয়ার মধ্যে বুধবার (১০ জুলাই) বিকেল ৫টার দিকে বিশেষ দুটি হেলিকপ্টারে করে তাঁরা কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার কুতুপালং মেগা এক্সটেনশন-২০ শিবিরের অস্থায়ী হেলিপ্যাডে অবতরণ করেন। 


কুতুপালং ২০ নম্বর শিবির থেকে উভয়ে কুতুপালং মেগা ১৭ নম্বর শিবিরে কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের শরণার্থী ব্যবস্থাপনা কেন্দ্রে আসেন। এসময় বিশ্বব্যাংকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ক্রিস্টালিনা জর্জিওভাও তাঁদের সঙ্গে ছিলেন।


এছাড়াও বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন, পররাষ্ট্র সচিব মো. শহীদুল হক, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. শাহ কামালসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা তাদের সঙ্গে ছিলেন। এসময় শরণার্থী ব্যবস্থাপনা কেন্দ্র প্রাঙ্গণে তিনটি গাছের চারা রোপণ করেন।


এরপর ওই কেন্দ্রে মার্শাল দ্বীপপুঞ্জের প্রেসিডেন্ট ও  জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব, পররাষ্ট্রমন্ত্রী, পররাষ্ট্র সচিব, দুর্যোগ ও ত্রাণ সচিবসহ সরকারি কর্মকর্তা ও অন্যানদের সঙ্গে বৈঠক করেন। এতে কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন, উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নিকারুজ্জামান চৌধুরীসহ সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা ও জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থার প্রতিনিধিরাও উপস্থিত ছিলেন।


বৈঠকে জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব বান কি-মুন ও মার্শাল দ্বীপপুঞ্জের প্রসিডেন্ট ড. হিলদা সি হেইন রোহিঙ্গাদের আশ্রয়দাতা স্থানীয় লোকজনের জীবনমান ও তাদের সঙ্গে রোহিঙ্গাদের সম্পর্কের ব্যাপারে অবগত হন। রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে নিরাপদ ও মর্যাদার সঙ্গে ফেরত পাঠানো এবং চলমান বর্ষাকালে রোহিঙ্গা ও স্থানীয়দের সমূহ দুর্যোগ থেকে রক্ষা করা, উভয়ের মধ্যে সুসম্পর্ক বজায় রাখার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।


বৈরী আবহাওয়ার কারণে রোহিঙ্গা শিবির ও স্থানীয়দের সঙ্গে একাধিক কর্মসূচি বাতিল করেন।


বুধবার (১০ জুলাই) সন্ধ্যা ৬টার দিকে জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব বান কি-মুন ও মার্শাল দ্বীপপুঞ্জের প্রেসিডেন্ট ড. হিলদা সি হেইন আলাদা আলাদা হেলিকপ্টারে করে ঢাকার উদ্দেশে রওনা দেন।  


এমবি

Print